তৃণমূলে যোগ দীপঙ্কর দে, ভরত কল, রশিদ-কন্যার

 

মহানগর ডেস্ক: ২১শে জুলাইয়ের সভামঞ্চ হোক, কিংবা তৃণমূলের নির্বাচনী প্রচার, সবেতেই একটা বড় ভূমিকা পালন করে এসেছে টলি তারকারা। ভোটমুখী বাংলায় তাই টলি তারকাদের নিয়ে দড়িটানাটানি শুরু হয়ে গেছে তৃণমূল ও বিজেপির মধ্যে। প্রবীণ অভিনেতা দীপঙ্কর দে, ভরত কল, লাভলী মিত্র ও কিংবদন্তী সংগীত শিল্পী উস্তাদ রশিদ খানের কন্যা শাওনা খানকে নিজেদের শিবিরে টেনে বড়সড় চমক দিলো তৃণমূল।

যত দিন যাচ্ছে, সক্রিয় রাজনীতির সাথে যুক্ত হচ্ছেন একের পর এক টলি তারকারা। কিছুদিন আগেই ‘মন্টু পাইলট’ খ্যাত অভিনেতা সৌরভ দাস, কৌশানি মুখোপাধ্যায় সহ অনেকেই নাম লেখান তৃণমূলে। আজ তপসিয়ার তৃণমূল ভবনে রাজ্যের মন্ত্রী ব্রাত্য বসুর হাত থেকে দলীয় পতাকা হাতে তুলে নিলেন দীপঙ্কর দে, টেলি জগতের পরিচিত মুখ ভরত কল,  ‘মোহর’ ও ‘জল নুপুর’  খ্যাত অভিনেত্রী লাভলী মিত্র, এবং কিংবদন্তী সংগীত শিল্পী উস্তাদ রশিদ খানের কন্যা শাওনা খান।

তৃণমূলের পতাকা হাতে নিয়ে বর্ষীয়ান অভিনেতা দীপঙ্কর দে বলেন, “আমি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছে দায়বদ্ধ। আমার অসুস্থতার সময় হাসপাতালের খরচ বহন করেছেন মাননীয়া। উনি আমাকে বঙ্গ ভূষণ, বঙ্গ বিভূষণ সম্মানে ভূষিত করেছেন। তাই মমতার সঙ্গে আমি বেইমানি করতে পারবোনা।” এদিন এই প্রবীণ অভিনেতা জানান যে  তৃণমূলই তাঁর প্রথম ও শেষ পছন্দের দল। যদিও তৃণমূলের আগে বাম আমলেও বেশ ঘনিষ্ঠ বলেই পরিচিত ছিলেন দীপঙ্কর দে। রাজ্যে পালাবদলের পর তিনিও দল পাল্টে নেন বলে অভিযোগ অনেকেরই।

এদিন মন্ত্রী ব্রাত্য বসু বলেন, “এই তো সব শুরু। জেলায় জেলায় বহু অল্প বয়সী ছেলে মেয়ে তৃণমূলে যোগ দিতে চাইছে। এবার জেলায় জেলায় আমরা যোগদান পর্ব অনুষ্ঠান সংগঠিত করবো।” টলিউড শিল্পীদের মধ্যেও  তৃণমূল এবং বিজেপিকে ঘিরে বিভাজন শুরু হয়ে গেছে ইতিমধ্যেই। কিছুদিন আগেই বিজেপিতে যোগদান করেছে রুদ্রনীল ঘোষ। একদা তৃণমূল ঘনিষ্ঠ হিরণের গলাতেও শোনা যাচ্ছে অন্য সুর।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here