ডেস্ক: দীর্ঘ টানাপড়েনের পর সোমবার রিজার্ভ ব্যাঙ্কের গভর্নরের পদ থেকে পদত্যাগ করেন উর্জিত প্যাটেল। বেশ কয়েকমাস ধরেই কেন্দ্র এবং আরবিআইয়ের মধ্যে যে দ্বন্দ্বের সৃষ্টি হয়েছিল তা জানতে কারোরই বাকি ছিল না। ইস্তফা দেওয়ার পর তিনি জানান যে, ব্যক্তিগত কারণেই এই ইস্তফা দিয়েছেন। এরই মাঝে মঙ্গলবার খবর পাওয়া যায়, রিজার্ভ ব্যাঙ্কের নতুন গভর্নর হচ্ছেন শক্তিকান্ত দাস। প্রাক্তন অর্থ বিষয়ক সচিব এবং বর্তমানে ফেডারেল ফিনান্স কমিশনের সদস্য হলেন শক্তিকান্ত দাস। অবশেষে তিনিই গভর্নরের পদে আসীন হলেন।

তবে অনেকেই হয়তো জানেন না যে, নোটবন্দি, জিএসটি হওয়ার নেপথ্য নায়ক তিনিই ছিলেন। রাজস্ব সচিব হওয়ার জেরে শক্তিকান্ত অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলির সঙ্গে কাজ করেছেন। তামিলনাড়ুর বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল(SEZ) ও শিল্পনীতি প্রয়োগের ক্ষেত্রে শক্তিকান্ত দাস যথেষ্ট সাফল্যের নজির রেখেছেন। বিশিষ্ট মহলের দাবি, কেন্দ্র এবং আরবিআইয়ের মধ্যে দীর্ঘদিনের যে সংঘাতের সৃষ্টি হয়েছে তা মেটানোর যতই চেষ্টা করা হোক না কেন এত সহজে এই সংঘাত মিটবে না। উল্লেখ্য, পদে যোগ দিয়েই বিজেপি সাংসদ সুব্রহ্মণ্যম স্বামীর তোপের মুখে পড়লেন তিনি।

শক্তিকান্ত দাসের গভর্নর পদে আসীন হওয়া নিয়ে স্বামী মন্তব্য করেন, আরবিআই পদে শক্তিকান্ত দাসকে নির্বাচন করা একটি বড় ভুল। প্রাক্তন অর্থমন্ত্রী পি চিদাম্বরমের এবং শক্তিকান্ত দাস বহু দুর্নীতির সঙ্গে যুক্ত। এছাড়া চিদাম্বরমের এমন অনেক দুর্নীতির ঘটনা আছে যেখানে থেকে তাঁকে মুক্ত করতে শক্তিকান্ত দাস সাহায্য করেছেন। এককথায় তিনি দুর্নীতিগ্রস্ত। তিনি আরও বলেন, এই নির্বাচন কিকরে প্রধানমন্ত্রী নিলেন তা তাঁর অজানা। তিনি সিদ্ধান্ত বদলের জন্য প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে চিঠি লিখবেন বলেও জানিয়েছেন।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here