ডেস্ক: গতকালই বিজেপি ছাড়ার সিদ্ধান্ত নিয়ে বড় ধাক্কা দিয়েছিলেন গেরুয়া শিবিরের প্রবীণ নেতাদের মধ্যে অন্যতম এবং প্রাক্তন অর্থমন্ত্রী যশোবন্ত সিনহা। এই ঘটনার কয়েক ঘণ্টা কাটতে না কাটতেই দল ছাড়া নিয়ে মন্তব্য করে তুমুল জল্পনা সৃষ্টি করলেন আরেক বিক্ষুব্ধ নেতা সাংসদ শত্রুঘ্ন সিনহা। পাটনা সাহেবের এই সাংসদ শনিবার একটি অনুষ্ঠানে অংশ নিয়ে রীতিমতো চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দেন কেন্দ্রীয় নেতৃত্বকে। তিনি বলেন, পারলে দল তাঁকে বহিষ্কার করে দিক, কিন্তু তিনি নিজে বিজেপি ছাড়বেন না।

এদিনের সভায়ও কেন্দ্রকে একহাত নেন শত্রুঘ্ন। তিনি বলেন, ২০১৫ বিধানসভা নির্বাচনের পর থেকেই শুনছি দল (বিজেপি) আমার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার কথা ভাবছে। আমার মনে হয় ওরা এতটাই অসহায় অবস্থার মধ্যে আছেন যে আমায় তাড়ানোর জন্য সঠিক সময়ের অপেক্ষা করছেন। তবে নিউটনের তৃতীয় গতিসূত্রের কথা উল্লেখ করে তিনি দলকে সাবধান বলেন, প্রত্যেক ক্রিয়ার যে বিপরীত মুখী ক্রিয়া হয় সেটা যেন তাঁর দল মনে রাখে।

রূপোলী পর্দা থেকে রাজনীতির ময়দানে আসা শত্রুঘ্ন এমন মেজাজে কথাগুলি বলেন যেন তিনি অপেক্ষাই করছেন তাঁকে দল থেকে বিতাড়িত করার। কিন্তু বারবারই তিনি স্মরণ করিয়ে দেন যে দল ছাড়ার জন্য তিনি দলে আসেন নি। তাঁর দাবি, তিনি সর্বদাই সাধারণ মানুষের স্বার্থে আওয়াজ তোলেন। নোটবন্দি এবং জিএসটির কথা টেনে শত্রু বলেন, এর ফলে অনেক ছোট ব্যবসা এবং কারখানা বন্ধ হয়ে গিয়েছে। এই নিয়ে কথা বলা কি জনগণের হিতৈষী না? এদিনের সভায় লালুর ছেলে তেজস্বী যাদবেরও প্রশংসা করেন শত্রুঘ্ন।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here