মহানগর ডেস্ক: মা হতে চলেছে লন্ডনের কিশোরী নিকোল মোর। ১৮ বছর বয়সি নিকোল হঠাৎ বুকে যন্ত্রণা এবং স্তনে ব্যথা অনুভব করেন। শুনে তার সহকর্মী জানান, তিনি গর্ভবতী। নিকোলের কাছে সেটি অবিশ্বাস্য মনে হয়। কারণ নিকোল কখনোই যৌন সঙ্গমে লিপ্ত হননি। এর পর পরীক্ষা করলে জানা যায় তিনি সত্যিই গর্ভবতী। বিস্ময়ের শেষ থাকে না নিকোলের।

নিকোল একটি বিরল রোগে আক্রান্ত। চিকিৎসার ভাষায় যাকে বলা হয় ‘ভাজাইনাসমস’।এই রোগের কারণে যোনির পেশি সংকুচিত এবং শক্ত হয়ে যায়। ফলে কোনো কিছু প্রবেশ সেখানে হয়ে ওঠে অসাধ্যকর। কার্যত নিকোল এবং তার প্রেমিক কয়েকবার যৌন সঙ্গমের চেষ্টা করেও ব্যর্থ হয়েছেন। তবে নিকোল কীভাবে গর্ভবতী হলেন? এই প্রশ্নই দানা বাঁধছিল প্রত্যেকের মনে।

প্রথমে চিকিৎসকরাও বিশ্বাস করতে চাননি নিকোল কোনও রকম যৌন সঙ্গম ছাড়াই গর্ভবতী হয়েছেন। অনেকেই এই ঘটনার পর নিকলকে খ্রিস্টধর্মে পূজিত কুমারী ‘মা মেরি’- র সঙ্গে তুলনা করেছেন। ঠাট্টাও করেছেন অনেকে। অবশেষে এক বিশেষজ্ঞ তাকে পরীক্ষা করে জানান আসল ঘটনাটি। বিশেষজ্ঞ জানিয়েছেন সঙ্গম সম্ভব না হলেও নিকোলের প্রেমিকের পতিত বীর্য তার যোনির অভ্যন্তরে গিয়ে তাকে গর্ভবতী করে তুলেছে। বর্তমানে পাঁচ মাসের গর্ভাবস্থা চলছে নিকোলের। জানা গিয়েছে তিনি জন্ম দিতে চলেছেন এক কন্যা সন্তানের। নাম রেখেছেন টিলি। নিকোল জানিয়েছেন, এই সময় তার প্রেমিক তার পাশে থেকেছেন এবং সমস্ত সাহায্য করেছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here