ডেস্ক: লোকসভা নির্বাচনের আগে কার্যত আত্মঘাতী গোল করে বসলেন দিল্লি কংগ্রেসের প্রধান শীলা দীক্ষিত। প্রধানমন্ত্রী হিসেবে সন্ত্রাসবাদ মোকাবিলার ভিত্তিতে নরেন্দ্র মোদীকে ইউপিএ প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং-এর থেকে বেশি নম্বর দিলেন তিনি। বৃহস্পতিবার দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে দিল্লি প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী স্বীকার করে নেন, জঙ্গিদের ঠেকাতে মোদী যতটা কড়া অবস্থান গ্রহণ করেছেন, ততটা শক্ত ছিলেন না মনমোহন।

অর্থনৈতিক ভারসাম্য রক্ষার্থে অবশ্যই বেশি নম্বর পাবেন মনমোহন। কিন্তু ২০০৮ সালে হওয়া মুম্বই হামলার পর সেভাবে পাল্টা কোনও জবাব দেওয়াই হয়নি জঙ্গিদের। সূত্রের খবর, সেই সময় সেনাবাহিনীর তরফে পাল্টা সার্জিক্যাল স্ট্রাইকের আবেদন জানানো হলেও তাতে সায় ছিল না মনমোহন সরকারের। এই নিয়ে মোদী বা শাহের কম কটাক্ষ হজম করতে হয়নি সোনিয়া-মনমোহনকে। কিন্তু খোদ দলের হেভিওয়েট মুখ্যমন্ত্রীই যে নিজের দলে কুড়ুল মেরে বসবেন, তা সম্ভবত ছিল কল্পনাতিত। এদিনের সাক্ষাৎকারে শীলা দীক্ষিত বলেন, ‘হ্যাঁ আমি স্বীকার করি, সন্ত্রাসবাদ মোকাবিলার ক্ষেত্রে মোদীর মতো কড়া ছিলেন না মনমোহন।’ ২০০৮ হামলার পর ইউপিএ সরকারের উচিত ছিল কড়া অবস্থান নেওয়া। কিন্তু জঙ্গিদের বিরুদ্ধে কড়া অবস্থান নেননি মনমোহন।

তবে মোদী যে বালাকোটের এয়ার স্ট্রাইক নিয়ে রাজনীতি করছেন, সেই বিষয়টিও উল্লেখ করতে ভোলেন নি শীলা। দিল্লির প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘মনে হচ্ছে মোদী যা করছেন পুরোটাই রাজনৈতিকভাবে উদ্দেশ্য প্রণোদিত। পুলওয়ামা হামলার পর থেকেই অবশ্য সেনা জওয়ানদের নিয়ে মোদীর বিরুদ্ধে রাজনীতি করার অভিযোগ তুলেছেন বিরোধীরা। কিন্তু এবার যেন রাহুল গান্ধীর আক্রমণের অস্ত্রই ভোঁতা করে দিলেন তাঁর নিজের দলের অন্যতম মন্ত্রী।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here