shivsena and modi

মহানগর ওয়েবডেস্ক: মহাভারতের প্রসঙ্গ টেনে এবার নরেন্দ্র মোদী সরকারকে আক্রমণ শানাল শিবসেনা। যত দিন যাচ্ছে করোনাভাইরাস পরিস্থিতি ততই খারাপ হচ্ছে দেশে। যদিও প্রাথমিক পর্যায় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী দাবি করেছিলেন, ২১ দিনের মধ্যেই ভাইরাস পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে চলে আসবে। সেই মন্তব্যের প্রেক্ষিতে এবার মহাভারতের প্রসঙ্গ টানল শিবসেনা। একই সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে এক হাত নিল তারা।

শিবসেনার মুখপাত্র সামনায় বলা হয়েছে, সংক্রমণের প্রাথমিক পর্যায়ে নরেন্দ্র মোদী দাবি করেছিলেন, ২১ দিনের মধ্যে দেশের করোনাভাইরাস পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসবে। অর্থাৎ এই ২১ দিনেই ভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে জিতবে দেশ। কিন্তু এখন ১০০ দিন পেরিয়ে গেলেও দেশের ভাইরাস পরিস্থিতির বিন্দুমাত্র পরিবর্তন হয়নি। বরং আগের থেকে পরিস্থিতি আরো বেশি খারাপ হয়েছে। এই প্রেক্ষিতেই মহাভারতের প্রসঙ্গ টেনে বলা হয়, করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াই ঐতিহাসিক মহাভারতের লড়াই-এর থেকেও কঠিন। এই লড়াই ২০২১ পর্যন্ত চলবে যতদিন না কোন ভ্যাকসিন বা প্রতিষেধক বের হচ্ছে। উল্লেখ্য ভারতের ইতিহাস অনুযায়ী মহাভারতের যুদ্ধ চলেছিল ১৮ দিন।

দেশের করোনাভাইরাস পরিস্থিতি নিয়ে একইসঙ্গে চিন্তা প্রকাশ করেছে শিবসেনা। তারা বলছে, গোটা বিশ্বের নিরিখে ভাইরাস ক্ষতিগ্রস্ত দেশ হিসেবে তিন নম্বরে ভারত, এটি ভীষণ উদ্বেগজনক বিষয়। যে দেশ অর্থনৈতিকভাবে ক্ষমতাশীল হবার স্বপ্ন দেখে সেই দেশে গত ২৪ ঘন্টায় প্রায় ২৫,০০০ ভাইরাস আক্রান্তের ঘটনা! এটি অত্যন্ত উদ্বেগজনক এবং আতঙ্কের বিষয়। এই প্রেক্ষিতে সেনার বক্তব্য, মহাভারতের যুদ্ধ যেখানে ১৮ দিন চলেছিল সেখানে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী দাবি করেছিলেন করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াই ২১ দিনে শেষ হবে। যদিও এখন ১০০ দিন অতিক্রান্ত হওয়ার পরেও সেই লড়াই জারি রয়েছে এবং জারি থাকবে। 

ভাইরাসের ভ্যাকসিন বের হওয়া নিয়ে খুব একটা আশাবাদী নয় শিবসেনা। তাদের মতে, করোনাভাইরাস থাকবে এবং সেটাকে নিয়েই আমাদের বাঁচতে হবে। ২০২১ সালের আগে ভ্যাকসিন বা প্রতিষেধক বের হবে না বলেই দাবি করছে শিবসেনা। তাদের মত, যতদিন না পর্যন্ত কোন ভ্যাকসিন বের হচ্ছে ততদিন ভাইরাসকে সঙ্গে নিয়ে বাঁচতে হবে সকলকে। যদিও লকডাউন প্রসঙ্গে ভিন্নমত রয়েছে সেনার। কতদিন পর্যন্ত লকডাউন কার্যকরী করা যেতে পারে সেই নিয়েও সন্দেহ প্রকাশ করেছে তারা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here