kolkata bengali news

মহানগর ওয়েবডেস্ক:  মহারাষ্ট্রর ২৮৮ টি বিধানসভা আসনের মধ্যে ১০৫টি আসন দখল করেও দশ দিন হয়ে গেল সরকার গড়তে পারছে না বিজেপি৷ সম্প্রতি বিজেপি নেতা তথা রাজ্যের অর্থমন্ত্রী সুধীর মঙ্গতরাই সাফ জানিয়েছেন, বিজেপি সরকার গড়তে না পারলে মহারাষ্ট্রে রাষ্ট্রপতি শাসন জারি হবে৷এর কড়া জবাব দিল শিবসেনা৷ দলের মুখপত্র সামনার সম্পাদকীয়তে রাজ্য সরকার গঠনের গাণিতিক নিয়ম বিজেপিকে মনে করাল এনডিএর শরিক উদ্ধবের দল৷ সেনার সাফ কথা, রাষ্ট্রপতি শাসনের হুমকি দেওয়ার আগে বিজেপি সংখ্যাগরিষ্ঠতার প্রমাণ দিক৷ ম্যাজিক ফিগারের চেয়ে অমিত-মোদীর দল ৪০টি আসন দূরে দাঁড়িয়ে আছে৷ এখন ফড়নবিশের মুখ্যমন্ত্রী হতে গেলে তাদের শরিক শিবসেনার সমর্থন দরকার৷

বিজেপি সরকার গড়তে বদ্ধপরিকর৷ চলতি মাসের ৬ তারিখ ওয়াংখেরেড় ফড়নবিশ টানা দ্বিতীয়বারের জন্য মুখ্যমন্ত্রী হিসাবে শপথ নেওয়ার কথা আগেই ঘোষণা করেছে বিজেপি৷ সরকার গড়তে মরিয়া পদ্ম শিবির শিবসেনাকে উপমুখ্যমন্ত্রী পদ সহ বেশ কয়েকটি মন্ত্রিত্বর প্রস্তাব দিয়েছে৷ যতারীতি তা প্রত্যাখান করেছে ঠাকরের দল৷ শিবসেনা সাংসদ সঞ্জয় রাউত এ’দিনও সাফ জানিয়েছেন, তাঁরা মুখ্যমন্ত্রী পদ চান৷ এই দাবি থেকে তাঁরা বিন্দুমাত্র সরবেন না বলে স্পষ্ট জানান তিনি৷

২১ অক্টোবর মহারাষ্ট্রে বিধানসভা নির্বাচন হয়েছিল৷ ২৪ অক্টোবর ভোটের ফল প্রকাশ হয়েছিল৷ এখানে দেখা যায় রাজ্যের সবচেয়ে বড় দল বিজেপি ১০৫, শিবসেনা ৫৬, এনসিপি ৫৪ ও কংগ্রেস-৪৪টি আসন পেয়েছে৷ অবশিষ্ট ১৯টি আসন সিপিএম সহ অন্যান্য দল পেয়েছে৷ কাজেই রাজ্য সরদার গঠনের ভোট গণিতে মহা ফাঁপড়ে পড়েছে বিজেপি৷ অন্যান্য দলের মধ্যে অধিকাংশই বিজেপিকে সমর্থন করবে না৷ অন্যদিকে শিবসেনা এখন এনসিপি-কংগ্রেস জোটের সাহায্যে রাজ্যে সরকার গড়তে চাইছে৷ এনসিপি রাজী হলেও কংগ্রেস খানিকটা সমস্যায় পড়ে গিয়েছে৷ তবে জোটের স্বার্থে শেষ পর্যন্ত এনসিপির সিদ্ধান্তকে মান্যতা দেবে সোনিয়ার দল৷

সামনায় এদিন সোজা জানিয়েছে দ্বিতীয় বৃহত্বম দল হিসাবে রাজ্যপালের উচিত তাদের সরকার গড়ার আহ্বান জানানো৷ তবে সেই সঙ্গে জানিয়েছে সরকার গড়তে না পারলে তারা এনসিপি, কংগ্রেসের সঙ্গে বিরোধী আসনে বসবে৷ তাও আড়াই বছরের মুখ্যমন্ত্রিত্বর দাবি কোনওভাবেই ছাড়বে না বলে জানিয়েছে উদ্ধবের দল৷ ২০১৪ সালেও এমনটা হয়েছিল৷ সেবার সরকার গড়তে ১০ দিন সময় লেগেছিল৷ এবারও কী একই ছবি দেখা যাবে? এখনও পর্যন্ত শিবসেনার অনমনীয় মনোভাব তাতে করে মহগারাষ্ট্রে বিজেপির সরকার গঠন ক্রমশ অসম্ভব হয়ে পড়ছে বলে মনে করে তথ্যভিজ্ঞ মহলের অধিকাংশ৷

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here