ডেস্ক: বিগত কয়েকমাসে বিজেপি ও শিবসেবার ক্রমশ এগিয়েছে ভাঙনের পথে। যার জেরে অভিমানী শিবসেনা, পালঘর বিধানসভা ভোটে বিজেপি বিরুদ্ধে একাই লড়াই করেছে, এমনকী লোকসভা ভোটে আলাদা লড়বে বলেও হুমকি দিয়েছিল তাঁরা। এদিকে বিরোধীদের জোটের কালো মেঘ যে ২০১৯ সালে ব্যাপক ঝড়ের আভাষ তা বুঝতে পেরে তড়িঘড়ি ঘর বাঁচানোর প্রস্তুতি নিয়েছেন গেরুয়ার হাই কম্যান্ডর অমিত শাহ। গতকালই শিবসেনা প্রধান উদ্ধব ঠাকরের সঙ্গে প্রায় ২ ঘন্টার বৈঠক শেষে অমিত শাহ জানান, আগামী লোকসভা ভোট তো বটেই ২০২৪ সালেও ঐক্যবদ্ধভাবে লড়াইতে নামবে বিজেপি ও শিবসেনা। কিন্তু মাত্র কয়েকঘন্টার মধ্যেই অমিত শাহের সেই বক্তব্যকে খন্ডন করলেন শিবসেনা সাংসদ সঞ্জয় রাউত।

অমিত শাহের সেই বক্তব্যকে রিতিমতো ফুঁৎকারে উড়িয়ে সঞ্জয়ের দাবি, বিজেপির লেজুড় হয়ে নয়, লোকসভা নির্বাচনে সম্পূর্ণ একক শক্তিতে লড়বে শিবসেনা। এদিন সাংবাদিকদের সামনে বক্তব্য রাখতে গিয়ে সঞ্জয় রাউত বলেন, ‘অমিত শাহের অ্যাজেন্ডা ঠিক কি তা আমরা জানি না। তবে শিবসেনা একটা প্রস্তাব অনুমোদন করেছে যে আমাদের দল একাই লড়বে এবং শিবসেনার এই সিদ্ধান্তের কোনও রকম নড়চড় হবে না।’

উল্লেখ্য, বুধবার রাত ৮ টা নাগাদ শিবসেনা প্রধানের বাসভবন মাতোশ্রীতে গিয়েছিলেন অমিত শাহ। সেখানে রুদ্ধদ্বার বৈঠক হয় উদ্ধব ঠাকরের সঙ্গে । সেই বৈঠকে উদ্ধব ঠাকরে ছাড়াও উপস্তিত ছিলেন উদ্ধবের ছেলে আদিত্য ও মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী দেবেন্দ্র ফড়ণবীশ। এই বৈঠকের পরই সংবাদ মাধ্যমের সামনে অমিত শাহ দাবি করেন, ‘শিবসেনার মধ্যে যা কিছু অসন্তোষ আছে তার সবটাই দূর করা হবে। ২০১৯ সাল শুধু নয় ২০২৪ সালেও একসাথে হাতে হাত মিলিয়ে লড়বে শিবসেনা। বিরোধীরা যতই জোট বাধুক, কিছুই আসে যায় না তাতে।’ বিজেপির সর্ব ভারতীয় সভাপতি অমিত শাহের সেই বক্তব্যকে খন্ডন করে বিজেপি বিরোধী সুর আবার চড়াও হল শিবসেনার মুখে। এখন প্রশ্ন উঠছে পরিবার দ্বন্দ্ব কাটিয়ে আদৌ কি পূর্ণমিলন ঘটেছে বিজেপি শিবসেনার?

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here