national news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: ঝাড়খণ্ডের গোড্ডা লোকসভা কেন্দ্রে ভাষণ দিতে গিয়ে নরেন্দ্র মোদীকে কটাক্ষ করে ‘রেপ ইন ইন্ডিয়া’ মন্তব্য করেছিলেন তিনি। যা নিয়ে সংসদ উত্তাল হয়। রাহুলের ক্ষমা চাইতে হবে, দাবি তোলেন বিজেপি সাংসদরা। এমনকী নির্বাচন কমিশনেও অভিযোগ করে বিজেপি। এদিনের মেগার‍্যালি থেকে সেই জবাবও দেন রাহুল। তাঁর স্পষ্ট জবাব, ‘মরে যাব, কিন্তু ক্ষমা চাইব না। আমার নাম রাহুল গান্ধী, রাহুল সাভারকর নয়।’ রাহুলের এই মন্তব্য নিয়েও ময়দানে নামে ভারতীয় জনতা পার্টি। কটাক্ষ করে বলা হয়, রাহুল গান্ধীর মন্তব্যের প্রেক্ষিতে শিবসেনা কী বলে তার উত্তরের অপেক্ষায় রয়েছে বিজেপি! অবশেষে এই নিয়ে মুখ খুলল সেনা।

শিবসেনার রাজ্যসভার সাংসদ সঞ্জয় রাউত রাহুলের মন্তব্যের প্রেক্ষিতে মন্তব্য করে বলেন, ‘আমরা জওহরলাল নেহরু, মহাত্মা গান্ধীকে শ্রদ্ধা করি। আপনাদেরও বীর সাভারকারকে অপমান করা উচিত নয়। এই ব্যাপারে আর কোনও মন্তব্যের প্রয়োজন নেই।’ রাউত আরও বলেন, ‘বীর সাভারকার শুধু মহারাষ্ট্রের জন্য নন, ভারতের জন্যও ভগবানস্বরূপ। জাতীয় সম্মানের ক্ষেত্রে তাঁর নাম উঠে আসে। দেশের স্বাধীনতার জন্য তিনিও অনেককিছু করেছেন, নিজের জীবন উৎসর্গ করেছিলেন। এটা নিয়ে কোনও তুলনা হওয়াই উচিত নয়।’ রাহুল গান্ধীর মন্তব্যে শিবসেনা কড়া আক্রমণ শানাবে এটাই হয়তো ভেবেছিল বিজেপি। কিন্তু আদতে ‘সেফ’ খেলল সেনা।

যে ঘটনাকে কেন্দ্র করে এতকিছু তা হল, রাহুল গান্ধীর ‘রেপ ইন ইন্ডিয়া’ মন্তব্য। বিজেপির তরফ থেকে তাঁকে ক্ষমা চাইতে বলা হয়েছিল। কিন্তু এই মন্তব্যের জন্য একেবারেই ক্ষমা চাইতে রাজি নন কংগ্রেস সাংসদ রাহুল গান্ধী। উল্টে তাঁর সাফ বক্তব্য ছিল, নরেন্দ্র মোদীও দিল্লিকে রেপ ক্যাপিটাল বলেছিলেন! পাশাপাশি তিনি দাবি করেছিলেন, ‘উত্তর পূর্ব ভারতকে জ্বালিয়ে দিয়েছেন নরেন্দ্র মোদী এবং তাঁর দল বিজেপি। এখন এই ইস্যু থেকে নজর ঘোরাতেই আমার ওপর আক্রমণ করা হচ্ছে। মানুষের নজর উত্তর পূর্ব থেকে ঘুরিয়ে দিতেই লোকসভা উত্তাল করা হচ্ছে। আমি যে মন্তব্য করেছি তার জন্য ক্ষমা চাওয়ার কোনও প্রশ্নই ওঠে না।’ সেই নিয়েই উত্তেজনা বাড়িয়ে যাচ্ছে বিজেপি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here