kolkata news

 

নিজস্ব প্রতিনিধি, ব্যারাকপুর: কিছুতেই শান্ত হচ্ছে না ভাটপাড়া। এবার গুলিবিদ্ধ হলেন এক তৃণমূল কর্মী। তার মাথায় গুলি লেগেছে। আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাঁকে ভর্তি করা হয়েছে কলকাতার অ্যাপোলো হাসপাতালে। গুলিবিদ্ধ ওই তৃণমূল কর্মীর নাম ধারু সিং ওরফে ধানুয়া। বুধবার সকাল সাড়ে দশটা নাগাদ ওই তৃণমূল কর্মীকে লক্ষ্য করে গুলি চালানোর ঘটনাটি ঘটে আর্যসমাজ মোড়ের কাছে। জানা গিয়েছে, সকালে ওই তৃণমূল কর্মী আর্যসমাজ মোড়ের দিকে যাচ্ছিলেন মোটর বাইকে করে। সেই সময় মুখে কালো কাপড় বেঁধে দু’জন সেখানে এসে তাকে লক্ষ্য করে গুলি চালায়। দুটি গুলি লাগে তার। এরপর স্থানীয় লোকজন দ্রুত ওই তৃণমূল কর্মীকে উদ্ধার করে এলাকার গোলঘর হাসপাতাল ও পরে কল্যাণী হাসপাতালে নিয়ে যান। তার অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় সেখান থেকে তাকে স্থানান্তর করা হয় কলকাতার অ্যাপোলো হাসপাতালে। আপাতত সেখানেই তিনি চিকিৎসাধীন।

এলাকা সূত্রে জানা গিয়েছে, গুলিবিদ্ধ তৃণমূল কর্মী ধারু সিং আগে বিজেপি করতেন। ব্যারাকপুরের বিজেপি সাংসদের ডানহাত বলে পরিচিত ছিলেন। গত বছরের সেপ্টেম্বর মাস নাগাদ তিনি বিজেপি’র সঙ্গ ত্যাগ করে যোগদান করেন শাসক দল তৃণমূলে। এরপর তিনি তৃণমূলের হয়ে বিভিন্ন মিটিং-মিছিলে অংশগ্রহণ করতে থাকেন।

এই ঘটনায় তৃণমূলের তরফে বিজেপি’র দিকে নিশানা করা হয়েছে। বলা হয়েছে, বিজেপির মদতেপুষ্ট দুষ্কৃতীরা তাদের দলের কর্মীকে গুলি করে হত্যা করার চেষ্টা করেছে। এই ঘটনায় সরাসরি স্থানীয় সাংসদ অর্জুন সিংকে কাঠগড়ায় তোলা হয়েছে। তৃণমূলের তরফে বলা হয়েছে, অর্জুন সিং নির্দেশেই ভাটপাড়ায় এই খুনের রাজনীতি চলছে।

এদিকে, এই অভিযোগ উড়িয়ে দিয়ে বিজেপি দাবি করেছে, এই ঘটনায় তাদের কোনও দায় নেই। ব্যারাকপুরের বিজেপি সংসদ অর্জুন সিং বলেছেন, ওই তৃণমূল কর্মীর নামে আগে বেশ কয়েকটি মামলা আছে। এটা ওদের দলের ব্যাপার। পরস্পরিক রাজনৈতিক চাপানউতোরের মাঝে এলাকায় উত্তেজনা তৈরি হয়েছে। ঘটনাস্থলে আছে পুলিশ বাহিনী। গোটা পরিস্থিতির ওপর পুলিশ নজর রাখছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here