kolkata bengali news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: দীর্ঘ দিনের সম্পর্ক কাটিয়ে বান্ধবী বৈশাখীকে সঙ্গি করে আজ বিজেপির ঘর আলো করে বসে আছেন শোভন চট্টোপাধ্যায়। তার এহেন সিদ্ধান্তে যারপরনাই অসন্তুষ্ট তৃণমূল। শোভনের বিরুদ্ধে দলের তরফে একাধিক কড়া পদক্ষেপ নেওয়ার পাশাপাশি সরকারী ভাবে বাতিল করে দিয়েছে তাঁর নিরাপত্তাটুকুও। বেহালার দায়িত্ব সঁপে দেওয়া হয়েছে রত্নার কাঁধে। এতদূর তাও ঠিক ছিল, এবার শোভনকে আহত করে বেহালার পুজা কমিটিগুলিও একে একে নিজেদের তালিকা থেকে নাম কাটল শোভনের। তাঁর পরিবর্তে সেই জায়গায় নাম উঠল শোভন চট্টোপাধ্যায়ের স্ত্রী রত্না চট্টোপাধ্যায়ের।

প্রসঙ্গত বেহালার একাধিক নামী দুর্গা পুজা ও কালি পুজা কমিটির শীর্ষ তালিকায় সর্বদা থাকে শোভন চট্টোপাধ্যায়ের নাম। তবে এবারের চিত্রটা ভিন্ন। পুজা কর্মকর্তাদের দাবি প্রাক্তন মেয়র এখন আর বেহালার বাসিন্দা নন। শোভনের ওয়ার্ডের কাজকর্মের দায়িত্বও তুলে দেওয়া হয়েছে রত্না চট্টোপাধ্যায়ের কাঁধে। ফলে পুজো কমিটিগুলি শোভনের নাম কেটে সেখানে তুলে দিয়েছে রত্নার নাম। তবে এই ঘটনার কথা অস্বীকারও করেননি রত্না চট্টোপাধ্যায়। তিনি বলেন, এর আগে পুজো কমিটিগুলি শোভন চট্টোপাধ্যায়ের কাছে আসত এবং সাহায্য পেত এখন আর পুজ কমিটিগুলির ফোন ওঠাচ্ছেন না তিনি। কারও কারও নম্বরতো আবার ব্লক করে দিয়েছেন। যার জেরেই পুজো কমিটি থেকে সরানো হয়েছে শোভনবাবুর নাম।

উল্লেখ্য, বেশ কয়েক মাসের রাজনৈতিক সন্ন্যাসের পর গত ১৪ দিল্লিতে গিয়ে বিজেপিতে যোগ দেন তৃণমূল নেতা শোভন চট্টোপাধ্যায়। তাঁর বিজেপি যোগের পর দলের মধ্যে অনুমান করাই হচ্ছিল শোভনের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নেবে দল। দলীয় পদক্ষেপের পাশাপাশি দীর্ঘ দিন ধরে যে পুজা কমিটিগুলির সঙ্গে থেকে এসেছিলেন শোভন সেখান থেকেও বাদ পড়তে হল কাননকে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here