ডেস্ক: এবারের কর্ণাটক বিধানসভা নির্বাচনের উত্তাপ যেন সামলে উঠতে পারছেন না জাতীয় রাজনীতির দিকদিশারীরা। নির্বাচনী প্রচার শুরু হওয়ার আগেই জোড়া আত্মঘাতী গোল করে বিজেপিকে ডুবিয়েছিলেন সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ। নির্বাচনী প্রচারে গিয়ে একই রকমের ভুল করে বসলেন কর্ণাটকের কংগ্রেস মুখ্যমন্ত্রী সিদ্দারামাইয়া। অমিত শাহ বিজেপি মুখ্যমন্ত্রী প্রার্থী ইয়েদুরাপ্পাকে ভুল করে ‘দুর্নীতিগ্রস্থ’ বলে বসেছিলেন। সিদ্দারামাইয়া নরেন্দ্র স্বামীর জন্য ভোট চাইতে গিয়ে তা চেয়ে বসলেন খোদ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর জন্য।

মানুষ মাত্রেই ভুল হওয়া স্বাভাবিক, কিন্তু রাজনৈতিক নেতাদের এমন প্রকাশ্য ভুল যে সংবাদমাধ্যমের শিরোনাম দখল করতে এক সেকেন্ডও সময় লাগায় না। সময় লাগবেই বা কেন? গতকালই যাকে প্রকাশ্য তর্কের জন্যই আহ্বান জানাচ্ছিলেন আজ তাঁরই প্রশংসা করে বসলেন সিদ্দারামাইয়া। ঘটনা হল, মঙ্গলবার কংগ্রেস বিধায়ক নরেন্দ্র স্বামীর জন্য নির্বাচনী প্রচারে অংশ নিয়েছিলেন তিনি। সেখানে জনসভায় ভাষণ দিতে গিয়ে তিনি বলেন, নরেন্দ্র মোদীর জন্যই উন্নয়নের কাজ দ্রুতগতিতে হয়েছে। সঙ্গে সঙ্গে অবশ্য নিজেকেও শুধরেও নেন, ঠিক অমিত শাহের মতো। কিন্ত ততক্ষণে যা হওয়ার তা হয়ে গিয়েছে। তার ভাষণের সেই অংশ সঙ্গে সঙ্গে ছড়িয়ে পড়ে সংবাদ মাধ্যমে।

এদিনের সভায় সিদ্দারামাইয়া বলেন, ”কর্ণাটকের সকল গ্রামগুলিতে রাস্তার কাজ, পানীয় জলের কাজ, বাড়িঘর তৈরির কাজ, সকল কাজই সম্ভব হয়েছে নরেন্দ্র মোদীর জন্য…” এই বলেই নিজেকে শুধরে নেন তিনি। সঙ্গে সঙ্গে বলেন, ”সরি সরি, নরেন্দ্র স্বামী। আসল কথা নরেন্দ্র।” পরে ড্যামেজ কন্ট্রোল করে তিনি আরও বলেন, ”এখানে স্বামী রয়েছে, মোদী রয়েছে গুজরাতে। নরেন্দ্র মোদী হলেন কল্পনা, আর স্বামী হলেন কল্পনা।”

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here