মহানগর ওয়েবডেস্ক: ফের আসরে নেমে পড়েছে পঞ্জাবের রাজনৈতিক দল অকালি শিরোমনি। বলিউডের যে কোনও কাজ নিয়ে তাঁদের মাথা ব্যথা থাকেই এবার নেটফ্লিক্সের ওয়েব সিরিজ ‘সেক্রেড গেমস-২’ নিয়ে মুখ খুলেছেন অকালি দলের বিধায়ক। এই দলের বিধায়ক মানজিন্দার সিং সিরশা ‘সেক্রেড গেমসে-২’এর একটি দৃশ্য নিয়ে বেজায় চটেছেন। সেই দৃশ্যে অভিনয় করতে দেখা গিয়েছে সইফ আলি খানকে। অভিনেতা প্রথম থেকেই একজন পঞ্জাবী পুলিশ অফিসারের চরিত্রে অভিনয় করছেন। সেইখানে একটি দৃশ্যে দেখা গিয়েছে সমুদ্রের ধারে দাঁড়িয়ে সইফ আলি খান নিজের হাতের ‘কারা’ খুলে ফেলছেন। কার্যত শিখ ধর্মে এই ‘কারা’-কে পবিত্র হিসাবে ধরা হয়। এতে শিখ ধর্মের অপম্নান হয়েছে বলে দাবি করেন ওই বিধায়ক।

তিনি এও জানান, ”আমি আশা করি বলিউড এই ধরনের অপমানসূচক কাজ করা বন্ধ করবে। অনুরাগ কাশ্যপে ইচ্ছা করেই এই কাজটি করেছেন। কাড়া কোনও গয়না নয় শিখ জাতির সম্মান সেটা। গুরু সাহেবের আশীর্বাদ থাকে তাতে। কীভাবে কোনও পড়াশুনা না করে এরা সিনেমা বানাতে আসেন। আমি চাই এই দৃশ্যটি অবিলম্বে নেটফ্লিক্স যাতে মুছে দেয়।” তিনি ভারতের তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রীকে অনুরোধ জানিয়ে বলেছেন, ”প্রকাশ জাভেড়কর মহাশয়কে জানাই কঠোর পদক্ষেপ নেওয়া উচিত আপনার। ধর্মের নামে এই পরিচালকেরা মানুষদের বেঁচে দিচ্ছেন সস্তার বিষয়। মত প্রকাশের স্বাধীনতা আছে বলে যা ইচ্ছা তাই করা যায় না।”

এর আগেও ‘সেক্রেড গেমস’-র প্রথম সিজনে ভারতের প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী রাজীব গান্ধীকে নিয়ে নানা কথা বলেন সিনেমার মধ্যে। যার জন্য কংগ্রেসের নেতারা অনুরাগের নামে আইনি নোটিশও পাঠান। ‘সেক্রেড গেমস-২’ আপাতত সোশ্যাল মিডিয়াতে জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। মুখ্য চরিত্রে অভিনয় করেছেন নওয়াজউদ্দিন সিদ্দিকি, পঙ্কজ ত্রিপাঠি, কাল্কি কোচেলিন, সইফ আলি খান।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here