ডেস্ক: মেট্রোতে প্রকাশ্যে আলিঙ্গন, আর সেই ঘটনাকে কেন্দ্র করে সোশ্যাল মিডিয়া সহ রাস্তায় নেমে প্রতিবাদের জেরে উত্তাল মহানগর। ‘নীতি পুলিশের’ শাস্তির দাবি জানিয়েছে অনেকেই। সোমবার দমদম স্টেশনে ঘটে যাওয়া হেনস্থার ঘটনার কথা মেট্রো কর্তৃপক্ষ স্বীকার করলেও, অস্পষ্ট সিসিটিভি ফুটেজের অভাবে ঘটনার তদন্ত করতে পারেনি বলে জানিয়েছে মেট্রো কর্তৃপক্ষ এবার সেই ঘটনার তদন্ত করতে পুলিশকে অনুরোধ জানালো তাঁরা।

সোমবারের হেনস্থার ঘটনার তদন্ত করতে সিঁথি থানাকে অনুরোধ করার পাশাপাশি, ভবিষ্যতে মেট্রোতে যাতে এই ধরনের ঘটনা না ঘটে, তার জন্য ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছে মেট্রো কর্তৃপক্ষ। মেট্রো কর্তৃপক্ষের তরফে জানানো হয়েছে, মেট্রোতে নিরাপত্তা ব্যবস্থা আরও বাড়ানোর জন্য লাগানো হবে আরও বেশী সিসিটিভি ক্যামেরা। কোচের মধ্যেও রাখা হবে এই ক্যামেরা। মেট্রোর আরপিএফ স্কোয়াডকে সন্ধ্যার পর আরও বেশী সতর্ক থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। একইসঙ্গে যাত্রীদেরও সতর্ক থাকার নির্দেশ দিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

উল্লেখ্য, সোমবার রাতের মেট্রোতে এক যুগলকে আলিঙ্গনবদ্ধ অবস্থায় দেখে তাঁদের সঙ্গে বচসা বাধে বেশ কয়েকজন প্রবীণের। এরপর মেট্রো দমদম স্টেশনে ঢোকার পর ওই যুগলকে এলোপাথাড়ি চালানো হয় কিল, চড়, ঘুসি। ঘটনার ছবি প্রকাশিত সোশ্যাল মিডিয়ায় শুরু হয় নিন্দা। বুধবার দুপুর ১২টা নাগাদ টালিগঞ্জ মেট্রো স্টেশনের সামনে জমায়েত হয় যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের অসংখ্য তরুণ-তরুণী। পোস্টার-প্ল্যাকার্ড-স্লোগানে তাঁরা আওয়াজ তোলেন, ‘হোক আলিঙ্গন’। এই ঘটনায় মেট্রো কর্তৃপক্ষ প্রথমে ওই যুগলের দিকে আঙুল তুললে, পরে বিবৃতি প্রত্যাহার করে নেয় তাঁরা। মেট্রো কোনও রকম ‘নীতি পুলিশের’ বিপক্ষে বলে স্পষ্ট জানিয়ে দেয় তাঁরা। সেই ঘটনার তীব্র প্রতিবাদের মাঝেই এবার সেই ঘটনার তদন্তভার মেট্রো কর্তৃপক্ষের তরফে সঁপে দেওয়া হল দমদম সিঁথি থানাকে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here