ডেস্ক: লোকসভার ঢাকে কাঠি পড়ে গিয়েছে। রবিবারই ৭ দফায় নির্বাচনের নির্ঘণ্ট প্রকাশ করে দিয়েছেন নির্বাচন কমিশনার সুনীল আরোরা। জোট সঙ্গী হলেও এহেন সময়েই আরও একবার ফের বিজেপিকে ঘুরিয়ে আক্রমণ শানালো শরিক দল শিবসেনা। সেনার ছবি দিয়ে রাজনৈতিক প্রচার না করার জন্য সম্প্রতি সমস্ত রাজনৈতিক দলগুলিকে জানিয়ে দিয়েছে নির্বাচন কমিশন। সেই ইস্যুকে হাতিয়ার করে মুখে বিজেপির নাম না নিলেও, স্পষ্ট ভাবে শিবসেনার তরফে জানিয়ে দেওয়া হল যারা শহীদের আত্মবলিদানকে সামনে রেখে ভোট চায়, রাজনীতি করে তাদের চিহ্নিত করা উচিৎ।

নির্বাচন পূর্বে শিব সেনার মুখপত্র সামনায় প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে স্পষ্ট ভাবে জানানো হয়েছে, ‘যারা সেনার বীরত্ব ও আত্মবলিদানকে নিয়ে রাজনীতি করছে সেই সমস্ত কালপ্রিটকে চিহ্নিত করে খুঁজে বের করা উচিৎ। রাজনৈতিক বিরোধীদের দেশবিরোধী বলাটা ঠিক নয়। পুলওয়ামা হামলার পর পাল্টা হামলায় অনেক রাজনৈতিক নেতা তার কৃতিত্ব নিয়েছেন। এটা কখনই কাম্য নয়। অনেক বিজেপি নেতা সেনার উর্দি পরে ভোট চাইছেন। এগুলো এটাই প্রমাণ করে শুধুমাত্র রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে এয়ারস্ট্রাইক করা হয়েছে।’ শুধু তাই নয়, বিরোধীদের উদ্দেশ্য করে সামনাতে আরও লেখা হয়েছে, ‘যারা এয়ারস্ট্রাইক নিয়ে প্রশ্ন তুলছেন তারা এটা ঠিক কাজ করছেন না এটা সেনার মনোবল ভেঙে দেওয়ার মতো একটা কাজ। প্রসঙ্গত, সম্প্রতি নির্বাচনী ব্যানারে বিজেপির নেতা নেত্রীদের ছবির পাশে বায়ু সেনার বীর জওয়ান অভিনন্দন বর্তমানের ছবি ছাপার অভিযোগ উঠেছে বিজেপির বিরুদ্ধে। পাশাপাশি, বিজেপির রাজনৈতিক র‍্যালিতে সেনার পোশাকে বাইক নিয়ে দাপাতে দেখা গিয়েছে সাংসদ মনোজ তিওয়ারিকে। গোটা বিষয় নিয়ে এবার সরব হল শিবসেনা।

উল্লেখ্য, রবিবারই নির্বাচন কমিশনের তরফে ঘোষণা করা হয়েছে আগামী ১১ এপ্রিল থেকে গোটা দেশে শুরু হবে সাত দফায় ভোটগ্রহণ। গণনা ও ফলাফল প্রকাশ হবে ২৩ মে। যদিও নির্বাচন নির্ঘণ্ট প্রকাশের অনেক আগেই তীব্র বিরোধিতা সত্ত্বেও বিজেপির সঙ্গে জোট বেঁধে লড়ার কথা আগেই ঘোষণা করে দিয়েছে শিবসেনা। মহারাষ্ট্রে শিবসেনা ২৩ ও বিজেপি ২৫ এই সূত্রেই নির্বাচন লড়বে তারা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here