মহানগর ডেস্ক:  উত্তরপ্রদেশে ও বিহারে নদীর স্রোতে একের পর এক মৃতদেহ ভেসে আসার সাক্ষী থেকেছে দেশবাসী। এবার মধ্যপ্রদেশের নদীতে একের পর এক মৃতদেহ ভেসে আসতে দেখা গেল। জানা গিয়েছে, মধ্যপ্রদেশের রঞ্জু নদীর স্রোতে একাধিক মৃতদেহ ভেসে আসতে দেখা গিয়েছে।

মধ্যপ্রদেশের পান্না জেলার নন্দপুর গ্রামের পাশ দিয়েই বয়ে চলেছে রঞ্জু নদী। সেই রঞ্জু নদীর জল গ্রামবাসীরা এতদিন নিজেদের দৈনন্দিন নানা কাজে ব্যবহার করতেন। বুধবার সকালে সেই নদীতে ছ’টা মৃতদেহ ভাসতে দেখেন গ্রামবাসীরা। এক প্রত্যক্ষদর্শী নদীর জলে ভাসতে থাকা সেই মৃতদেহগুলোর ভিডিয়ো করেন। এই খবর প্রকাশ পাওয়ার পরেই গ্রামবাসীদের মধ্যে চাঞ্চল্য ছড়ায়। নন্দপুরের মানুষ স্থানীয় পুলিশ প্রশাসনকে খবর দিয়েছেন বলে জানা গিয়েছে। করোনার দেহ গুলো নদীতে ভাসানো হয়েছে বলেই মনে করছেন গ্রামবাসীরা।

স্থানীয় গ্রামবাসীরা জানিয়েছেন, এই নদীর জলেই তাঁরা স্নান করেন, অনেক সময় রান্নার কাজ করেন। পানীয় জলের চাহিদাও অনেক সময় এই নদীতে গ্রামবাসীরা মেটান। গবাদি পশুরাও এই জল পান করেন। গ্রামবাসীরা আশঙ্কা করছেন, তাঁরা দ্রুত করোনা সংক্রমিত হয়ে যেতে পারেন। পান্নার কালেক্টর সঞ্জয় মিশ্র জানিয়েছেন, দুটো মৃতদেহ তাঁরা পরীক্ষা করেছেন। একটা দেহ ৯৫ বছরের বৃদ্ধের, একটা দেহ ক্যানসার রোগী। বাকিদের দেহ বোঝা যায়নি। এই দেহগুলো কবর দেওয়া হয়েছে। তিনি জানিয়েছেন, অনেক ক্ষেত্রে স্থানীয় রীতি মেনে দেহ নদীর জলে ভাসিয়ে দেওয়া হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here