ডেস্ক: অযোধ্যার বিতর্কিত জমিতে রামমন্দির হোক। অযোধ্যা বিতর্কের অবসান ঘটাতে জমি দিতেও বিন্দুমাত্র কার্পণ্য করবেন না মুসলিমরা। শুক্রবার শীর্ষ আদালতে এমনটাই জানাল উত্তরপ্রদেশের শিয়া ওয়াকফ বোর্ড। শীর্ষ আদালতে ওই মুসলিম সংগঠনের তরফে জানানো হয়েছে এলাহাবাদ হাইকোর্ট শিয়া ওয়াকফ বোর্ডকে যে জমি দিয়েছিল তারই এক তৃতীয়াংশ মন্দির গঠনের জন্য হিন্দুদের হাতে তুলে দিতে রাজি তাঁরা।

এপ্রসঙ্গে শিয়া ওয়াকফ বোর্ডের প্রধান ওয়াসিম রাজভি সংবাদ মাধ্যমকে জানান, ‘অযোধ্যাতে কখনও কোনও মসজিদ ছিল না ভবিষ্যতেও তা হবে না। অযোধ্যা বরাবরই রামের জন্মভূমি। রামমন্দিরই তৈরি হবে এখানে। বাবর প্রেমীদের এখানে হার মানতেই হবে।’ তবে ঠিক এক্ষেত্রে উল্টো সুর গেয়েছেন সুন্নি ওয়াকফ বোর্ডের আইনজীবী রাজীব ধাওয়ান। এইপ্রসঙ্গে, সাংবাদিকদের তিনি বলেন, ‘নিজেদের মতামত দেওয়ার কোনও অধিকার নেই শিয়া ওয়াকফ বোর্ডের। তালিবানরা ঠিক যেভাবে বামিয়ান ধ্বংস করেছিল ঠিক সেইভাবে বাবরি মসজিদ ধ্বংস করেছে ভারতের হিন্দু তালিবানরা, মসজিদই তৈরি হবে ওখানে।

উল্লেখ্য, অযোধ্যাতে বাবরি মসজিদ নিয়ে বিতর্ক বহুদিনের। বাবরি মসজিদ ধ্বংসের পর থেকে হিন্দুদের উপর খাপ্পা মুসলিমরা। রাম মন্দির নাকি বাবরি মসজিদ স্থাপিত হবে অযোধ্যাতে তা নিয়ে শীর্ষ আদালতে মামলা চলছে দীর্ঘদিন ধরে। তবে মুসলিমদের থেকে কিছুটা অন্য পথে হেঁটে সেখানে রাম মন্দির তৈরিতেই সম্মতি দিল শিয়া ওয়াকফ বোর্ড।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here