kolkata bengali news

নিজস্ব প্রতিবেদক, বীরভূম: আত্মকেন্দ্রিক সমাজে তিনি এক অনন্য উদাহরণ। পথে-ঘাটে দুঃস্থ, অসহায়, প্রতিবন্ধী মানুষদের দিক থেকে মুখ ফিরিয়ে নেওয়ার ঘটনা নতুন কিছু নয়। কিন্তু এমন এক মানুষ রয়েছেন যিনি বীরভূমের গর্ব। যিনি নিত্যদিন সেই সমস্ত মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে সেবা করে চলেছেন। তাঁর এই সেবাকে কুর্নিশ জানিয়েছেন সমাজের বিভিন্ন স্তরের মানুষ।

সেখ রমজান। সবে কৈশোর পেরিয়ে যৌবনে পা দিয়েছেন। বাড়ি বীরভূমের সিউড়ি শহরের ১৭ নম্বর ওয়ার্ডের তালবোনা এলাকায়। পেশায় তিনি টোটো চালক। বাবা রাজমিস্ত্রির কাজ করেন। তিন ভাই ও এক বোনের মধ্যে সব থেকে বড় রমজান। বাবার সঙ্গে সংসারের দায়িত্ব ভাগ করে নিতে বছর খানেক আগে টোটো চালানো শুরু করেন। এই কাজের সঙ্গেই সমাজসেবা করে চলেছেন তিনি। প্রতিবন্ধী, রোগী, দুঃস্থ ও অসহায় মানুষকে গন্তব্যস্থলে পৌঁছে দিতে তিনি কোনও ভাড়া নেন না। টোটোর গায়ে মোবাইল নাম্বার সহ সেই সাহায্যের কথা লিখে রেখেছেন তিনি। ফোন এলেই রোগীকে হাসপাতালে বা চিকিৎসকের কাছে পৌঁছে দেন। অন্য ভাড়া নিয়ে পথে চলতে চলতে কোনও প্রতিবন্ধী বা দুঃস্থ অসহায় মানুষ নজরে এলে তিনি তাঁকে গাড়িতে তুলে নিয়ে পৌঁছে দেন ঠিকানায়। অথচ বর্তমান সমাজে হঠাৎ কেউ দুর্ঘটনায় পড়লে বা রাস্তাঘাটে অসুস্থ হয়ে পড়লে মুখ ফিরিয়ে নিয়ে চলে যাওয়াতেই অভ্যস্ত সকলে। সেখানে রমজানের এই কাজ সমাজে দৃষ্টান্ত তৈরি করেছে।

সেখ রমজান বলেন, ‘যেদিন টোটো কিনেছিলাম সেদিন ঠিক করেছিলাম রাস্তায় গাড়ি বের করব শুধু নিজের রোজগারের জন্যই নয়। সমাজের ভাল কিছুর জন্যও। তাই নিয়মিত রোগীদের পাশাপাশি দুঃস্থ, অসহায়, প্রতিবন্ধী মানুষদের বিনা পয়সায় তার গন্তব্যে পৌঁছে দিই।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here