মহানগর ওয়েবডেস্ক: দ্বন্দ্ব ছিল, এখনও আছে বৈকি। তবে সে সবকিছু দূরে সরিয়ে রেখে নিজের বাসভবনে শচীন পাইলটের সঙ্গে হাসিমুখে করমর্দন সারলেন রাজস্থানের মুখ্যমন্ত্রী অশোক গেহলট। প্রায় মাসখানেক ধরে চলা টানাপড়েন ও তিক্ততার যবনিকা এদিন এভাবেই পতন হতে দেখা গেল জয়পুরে। শচীন পাইলটের ঘর ওয়াপসিতে উচ্ছ্বাস দেখা গেল কংগ্রেস শিবিরেও। স্পষ্টতই বোঝ গেল, সব ভুলে এখন সামনের দিকে তাকাতে চাইছেন অশোক গেহলট।

রাজস্থান বিধানসভায় আগামিকাল থেকে শুরু হচ্ছে অধিবেশন। কালই আবার গেহলট সরকারের বিরুদ্ধে অনাস্থা আনবে বলে জানিয়েছে বিজেপি। তবে ‘হারানো ছেলে’ ঘরে ফিরে আসায় সরকার সুরক্ষিত রাখার বিষয়ে এখন অনেকটাই নিশ্চিত কংগ্রেস। অথচ কয়েকদিন আগে পর্যন্তও পরিস্থিতিটা এরকম ছিল না। রীতিমতো খাদের ধারে দাঁড়িয়ে ছিল গেহলটের সরকার। মনে করা হচ্ছিল, শচীন পাইলট বিজেপিতে যোগ দিয়ে হুবহু মধ্যপ্রদেশের কায়দায় সরকার ফেলে দিতে পারেন রাজস্থানে। তবে শেষ পর্যন্ত সেটা হল না। কংগ্রেসের শীর্ষ নেতৃত্ব রাহুল গান্ধী ও প্রিয়াঙ্কা গান্ধীর সঙ্গে দেখা করার পরই মানভঞ্জন হয় শচীনের।

গেহলট মন থেকে শচীন পাইলটকে না মেনে নিলেও দলের প্রতি আনুগত্য এবং সনিয়া-রাহুলের আস্থা রাখতেই শচীনের হাত হাসিমুখে ধরেছেন, এটুকু স্পষ্ট। এবার আগামী তিন বছর কংগ্রেসের সরকার মসৃণভাবে চলে নাকি আবার এই দ্বন্দ্ব আগামী সময় মাথাচারা দেয় সেটাই দেখার বিষয় হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here