bengali news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছে বাবার। মৃত্যুর পর বাবাকে একবার শেষ দেখা দেখতে চেয়েছিল ছেলে। তবে বাবার মৃতদেহ দেখানোর জন্য ছেলের কাছে প্রায় ৫১,০০০ টাকা চাইল হাসপাতাল। এমনই অভিযোগ উঠেছে পশ্চিমবঙ্গের একটি বেসরকারি হাসপাতালে।

মৃত হরি গুপ্তের ছেলে সাগর গুপ্ত জানিয়েছেন, তার বাবা যে মারা গেছে সেটাও পর্যন্ত তাদের একদিন পর জানায় হাসপাতাল। রবিবার বিকেলে সাগরবাবুকে হাসপাতাল থেকে ফোন করে জানানো হয় তার বাবা শনিবার রাতে মারা গিয়েছে। খবর পেয়ে হাসপাতালে পৌঁছয় মৃতের পরিবার। সেখানে গিয়ে তারা জানতে পারে মৃতদেহ ইতিমধ্যেই শিবপুর শ্মশানে দাহ করার জন্য পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে। যা জানতে পেরে তড়িঘড়ি সেখানে যায় হরিবাবুর পরিবারের লোকেরা।

অভিযোগ, শ্মশানে যাওয়ার পর পরিবারের লোকেরা হরিবাবুর মৃতদেহ দেখতে চাইলে তাদের কাছ থেকে প্রায় ৫১,০০০ হাজার টাকা দাবি করে হাসপাতালের এক আধিকারিক। তবে তাদের পক্ষে এত টাকা দেওয়া সম্ভব নয় জানালে দর কমিয়ে ৩১,০০০টাকা তাদের দিতে বলে ওই আধিকারিক।

এরপরেই পুলিশকে ফোন করে অভিযোগ জানায় সাগরবাবু। পুলিশ পৌঁছে হাসপাতালের আধিকারিকদের অনুরোধ করলেও তারা মানেনি। এই গোটা ঘটনা নিজেদের ফোনে রেকর্ড করে মৃতের পরিবার। তবে তাদের ফোন কেড়ে নেয় ওই আধিকারিক।

এরপর দাহ করে দেওয়া হয় ওই ব্যক্তির দেহ। যার ফলে তাকে শেষ দেখাও দেখতে পায়নি তার পরিবার। ওই পরিবার থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হলে আগে প্রিয়জনকে চোখের দেখা দেখার সু্যোগ পেতেন না বাড়ির লোকরা। তবে মাস দুয়েক আগে বদলেছে সেই নিয়ম। মৃতের প্রতি শেষশ্রদ্ধা জানাতে পারবে পরিবার এমনই সিদ্ধান্ত নিয়েছিল স্বাস্থ্য দফতর। তবে এই ঘটনায় ফের বেসরকারি হাসপাতালগুলির ভূমিকা নিয়ে উঠছে প্রশ্ন।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here