নিজস্ব প্রতিবেদক, বহরমপুর: মায়ের অবৈধ সম্পর্কের প্রতিবাদ করায় খুন হয়ে যেতে হল ছেলেকে। চাঞ্চল্যকার এই ঘটনাটি ঘটেছে মুর্শিদাবাদের সদর মহকুমার হরিহরপাড়া থানার হরিশপুর গ্রামে। মৃতের নাম সরিফুল খান(২২)। মৃতের কাকা মনিরুল খানের অভিযোগ, তার বৌদি অর্থাৎ সরিফুলের মা সারজুমা বিবি(৪৫) একাধিক পর পুরুষের সঙ্গে বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্কে জড়িত ছিল। সরিফুল তার প্রতিবাদ করায় এর আগেও পরিবারে অশান্তি বাধে। সবকিছু জেনে শুনে চুপ ছিল সরিফুলের বাবা আমিরুল খান। সরিফুলের ভাই সফিকুল খান(১৫) ও বোন আমিনা খাতুন(১৭)ও কার্যত নিরব ছিল গোটা ঘটনা নিয়ে।

প্রায় বছর খানেক আগে সরিফুলের বিয়ে হয়। তারপর সমস্যা আরো বাড়ে। বাড়িতে পরপুরুষের আনাগোনা মেনে নিতে পারেনি সরিফুল ও তার স্ত্রী জিন্নাতুন বিবি। প্রতিবাদ করায় তাদের বাড়ি থেকেও তাড়িয়ে দেয় বাবা-মা। সরিফুলের কাকা মনিরুল খান তাদের বাড়িতে আশ্রয় দেন। এরপর থেকে তারা মনিরুল খানের বাড়িতেই থাকত। সপ্তাহ খানেক আগে বাড়িতে ফের বিবাদ বাধে। হরিহরপাড়া থানায় নিজের ছেলের নামে মারধোর ও শ্লীলতাহানির মিথ্যে অভিযোগ করে সরিফুলের মা সারজুমা। সরিফুলের মামার বাড়ির লোকজনও তাকে প্রানে মারার হুমকি দেয়। সরিফুলের সন্তানসম্ভবা স্ত্রী বাবার বাড়িতে রয়েছে। তিন চারদিন যাবৎ বাড়ির বাইরে দেখা যায়নি সরিফুলকে।

সোমবার সকালে প্রতিবেশীরা আমিরুলের বাড়ি থেকে দুর্গন্ধ পান। জানালা দিয়ে উকি মেরে দেখেন ঘরের মধ্যে সরিফুলের ঝুলন্ত পচাগলা দেহ। বাড়িতে লোকজন জড়ো হতেই বাড়ি ছেড়ে সকলেই পালিয়ে যায় সকলে। খবর দেওয়া হয় হরিহরপাড়া থানার পুলিশকেও। মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তে পাঠিয়েছে পুলিশ। ঘটনায় এলাকাজুড়ে ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। অভিযুক্তদের কঠোর শাস্তির দাবি জানাচ্ছেন স্থানীয়রা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here