kolkata news

 

নিজস্ব প্রতিনিধি, বালুরঘাট:  প্রতিবেশীদের মধ্যে সংঘর্ষের সময় মা-কে বাঁচাতে গিয়ে মৃত্যু হল এক ছাত্রের। ঘটনাটি ঘটেছে বালুরঘাট শহরের আখিরা পাড়ায়। মৃতের নাম রত্ন বর্মন (১৭)। সে নদীপার এনসি হাইস্কুলের দশম শ্রেণির ছাত্র ছিল। বালুরঘাট থানা থেকে সামান্য দূরে এই ঘটনায় এলাকায় যথেষ্ট চঞ্চল্য ছড়িয়েছে। পাশাপাশি শোকের ছায়া নেমে এসেছে এলাকায়। এলাকার লোকজন ভাবতেও পারছে না  প্রতিবেশীদের গণ্ডগোলের মধ্যে পড়ে এভাবে অকালে প্রাণ দিতে হবে ওই স্কুল ছাত্রকে। পুলিশ এখনও পর্যন্ত তিনজনকে আটক করে থানায় নিয়ে গেলেও অন্যরা পালিয়ে যাওয়ায় তাদের সন্ধান চলছে। যদিও স্থানীয় ও মৃতের পরিবারের কেউ কেউ অভিযোগ জানিয়েছেন, ওই এলাকার প্রাক্তন পঞ্চায়েত সদস্যের সামনেই এই ঘটনা ঘটলেও তিনি এই প্রতিবেশীদের ঝামেলা থামাতে যাননি। যদিও পিংকি সরকার নামে সেই সদস্য ওই অভিযোগ অস্বিকার করেছেন।

স্থানীয় ও মৃত ছাত্রের পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে, আখিরা পাড়ায় দুই পরিবারের মহিলাদের মধ্যে প্রথমে বচসা শুরু হয়। এর আগেও নাকি নানান ব্যাপারে এই দুই প্রতিবেশী মহিলার মধ্যে ঝামেলা হয়। আবার স্থানীয়দের হস্তক্ষেপে তা মিটেও যায়। ওই দুই মহিলার মধ্যে চলা সকালের ঝামেলা মিটে গেলেও ফের তারা সন্ধ্যায় আবারও একই ঝামেলায় জড়িয়ে পড়েন। জানা গিয়েছে, সন্ধ্যায় রত্নের মা রুমাদেবী পাড়ার দোকানে জিনিসপত্র কিনতে গেলে দুই পরিবারের মধ্যে ফের সংঘর্ষ বেধে যায়। ঝামেলার খবর পেয়ে রত্ন ছুটে গিয়ে মা-কে বাঁচাতে যায়। এর মধ্যে সংঘর্ষ চলাকালীন রত্নের মাথায় কাঠ দিয়ে আঘাত করা হয় বলে অভিযোগ। ঘটনাস্থলে লুটিয়ে পড়ে রত্ন।

গতকাল রাতে প্রথমে তাকে বালুরঘাট জেলা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে তার অবস্থার অবনতি হলে পরে তাকে কলকাতা রেফার করেন কর্তব্যরত চিকিৎসক। কলকাতা নিয়ে যাওয়ার পথেই আজ ভোর রাতে তার মৃত্যু হয় বলে পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে। গোটা ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে বালুরঘাট থানার পুলিশ। ইতিমধ্যেই তিনজনকে আটক করে বাকিদের সন্ধান চলছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here