‘সঞ্জীবনী বুটি সম্বন্ধে জ্ঞান নেই!’ বাড়ির নাম ‘রামায়ণ’, আক্রমণের মুখে সোনাক্ষী

0
500
kolkata bengali news, sonakshi sinha

মহানগর ওয়েবডেস্ক: ‘কার জন্য সঞ্জীবনী বুটি এনেছিলেন হনুমান?’ ১)রাম, ২)সুগ্রীব, ৩)সীতা, ৪)লক্ষ্মণ। এই চারটি অপশন দেওয়া হয়েছিল সোনাক্ষী সিনহাকে। কিন্তু অভিনেত্রীর কাছে তা এত শক্ত হয়ে যা তিনি নিজেও ভাবতে পারেননি। গত শুক্রবার ‘কৌন বানে গা ক্রোড়পতি’ অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হয়ে আসেন সোনাক্ষী। হট সিটে বসেছিলেন রাজস্থানের স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার কর্মী রুমা দেবী। রুমা বা অভিনেত্রী কেউই এই প্রশ্নের জবাব দিতে পারেননি। আর এরপরেই সোশ্যাল মিডিয়ায় সোনাক্ষী ট্রোলড হতে থাকেন। প্রত্যেকের একটাই প্রশ্ন যার বাবার নাম শত্রুঘ্ন সিনহা, দুই ভাইয়ের নাম লভ এবং কুশ, তাঁদের বাড়ির নাম ‘রামায়ণ’ সেখানে তিনি এরকম ভুল কী করে করতে পারলেন? তাছাড়াও অভিনেত্রী কি রামায়ণ পড়েননি? এও প্রশ্ন তুললেন নেটিজেনরা।

ভিডিয়োটিতে দেখা যাচ্ছে সঞ্চালক অমিতাভ রুমা দেবী এবং অভিনেত্রীকে সঞ্জীবনী বুটি-র প্রশ্ন জিজ্ঞেস করেন। প্রশ্ন শোনা মাত্রই কপালে চিন্তার ভাঁজ পড়ে যায় অভিনেত্রীর । লাইফলাইন এবং বিশেষজ্ঞের অপশন নিতে দেখা যায় তাঁকে। যদিও অনেকটাই দেরি হয়ে গিয়েছিল। সামন্য প্রশ্নের উত্তর যে অভিনেত্রী দিতে পারলেন না এই নিয়েই ঠাট্টা করতে শুরু করে নেটিজেনরা। সোশ্যাল মিডিয়ায় তাঁকে নিয়ে বিভিন্ন মিম বানাতে থাকে ট্রোলাররা। কেউ বলছেন, আপনার পরিবারের সদস্যদের নাম রামায়ণের বিভিন্ন চরিত্রের সঙ্গে মিল আছে। এমনকি আপনাদের বাড়ির নাম ‘রামায়ণ’। আর আপনি এই সহজ প্রশ্নের জবাব দিতে গিয়ে হোঁচট খেয়ে বসলেন।’

কেউ আবার লিখেছেন, ‘আপনি তো আলিয়ার দলে সামিল হয়ে গেলেন।’ আবার কেউ মজা করে বললেন, ‘আপনি তো ‘মিশন মঙ্গল’-এর সাইনটিস্ট ছিলেন না!’ এদিকে শো চলাকালীন অমিতাভও সোনাক্ষীকে নিয়ে মজা করতে ছাড়লেন না। তিনি বললেন,’তোমার বাবা এবং কাকাদের নাম রামায়ণের চরিত্রদের থেকে নেওয়া হয়েছে। তুমি যেখানে থাকো সেই বাড়ির নাম ‘রামায়ণ’। আর তুমি কিনা বলতে পারলে না হনুমান সঞ্জীবনী বুটি কার জন্য এনেছিল?’ এরপর অভিনেত্রী জানান, ‘আমি জানতাম। কিন্তু ওনার জন্য ভয় পেয়ে গিয়েছিলাম। আমি কোনও রিস্ক নিতে চাইনি।’ দর্শকাশনে বসে পুরো বিষয়টি আনন্দের সঙ্গে উপভোগ করলেন সোনাক্ষীর মা পুনম সিনহা।

Experts discussion#sonakshisinha pic.twitter.com/m4NORRujUm

— Rk (@rahulngupta48) September 21, 2019

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here