bollywood news

মহানগর ওয়েবডেক্স: করোনা সংক্রমণ যাতে ব্যাপক হারে না ছড়াতে পারে সে কারণে গত মঙ্গলবার রাত ১২ টা থেকে দেশজুড়ে আগামী ২১ দিনের জন্য শুরু হয়েছে লকডাউন। সামাজিক দূরত্ব বাড়িয়ে সংক্রমণের ছড়িয়ে পড়াকে রোধ করাই এই লকডাউনের উদ্দেশ্য। প্রধনমন্ত্রীর এই লক ডাউনের ঘোষণাকে যথাযথ গুরুত্ব দিয়েই দেখছে সব রাজ্যে। কিন্তু কিছু ক্ষেত্রে বেপরোয়া ও অচেতন মানুষদের নিয়ন্ত্রণ করার জন্য প্রয়োজনের অতিরিক্ত কঠোর হতে হচ্ছে প্রশাসনকে। নিজের রাজ্যে সংক্রমণকে যথেষ্ট গুরুত্ব না দেওয়া মানুষদের নিয়ন্ত্রণ করার জন্যই তেলেঙ্গানার মুখ্যমন্ত্রী চন্দ্রশেখর রাও অত্যন্ত কড়া পদক্ষেপ গ্রহণ করেছেন।

লকডাউন এর পরিপ্রেক্ষিতে নিজের রাজ্যের মানুষদের নিয়ন্ত্রণ করতে বিশেষ হুইপ জারি করেছেন চন্দ্রশেখর। দু দিন আগেই তিনি জানিয়ে দিয়েছেন লকডাউন কে অমান্য করে মানুষ যদি রাস্তায় বেরোয় তাহলে ২৪ ঘন্টা কার্ফু জারি করা হবে, সেই কার্ফু অমান্য করলে সেনাবাহিনী নামানো হবে এবং ‘দেখলেই গুলি’ চালানোর আদেশ দেওয়া হবে।
গতকালই মুখ্যমন্ত্রীর এই বক্তব্য প্রসঙ্গে সোনম লিখেছেন, ‘আমি দ্বিধাগ্রস্ত… এটা কি স্বাভাবিক?’ নিজের টুইটার পেজে ফ্যানেদের উদ্দেশে টুইট করে সোনম তাঁর অভিমত ব্যক্ত করেন।

করোনা ভাইরাসের সংক্রমণের বিষয় সম্পর্কে প্রত্যেকেই যথেষ্ট অবগত। রাজনৈতিক বিরোধীরা পর্যন্ত প্রধানমন্ত্রীর লকডাউনের সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছেন। কারণ কোভিড–১৯ ভাইরাস সংক্রমণ প্রতিহত করার পদ্ধতি প্রকরণ সোনম কাপুর বিলক্ষণ জানেন। কিন্তু যে কঠোরতার সঙ্গে মুখ্যমন্ত্রী তাঁর রাজ্যের মানুষের কাছে বার্তা পৌঁছে দিয়েছেন সেটার যৌক্তিকতা নিয়েই হয়তো প্রশ্ন তৈরি হয়েছে অভিনেত্রীর মনে। ‘দ্বিধাগ্রস্ত’ শব্দটি ব্যবহার করে সে কারণেই হয়তো অভিনেত্রী একইসঙ্গে অচেতন জনগণ ও কঠোর প্রশাসন দু’পক্ষের প্রতিই তাঁর অসমর্থন প্রকাশ করেছেন। যদিও তার অনুরাগীরা প্রায় একতরফা ভাবেই চন্দ্রশেখর–এর মন্তব্যের বিরোধিতা করেছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here