kolkata bengali news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: আরও বড় বিস্ফোরণ ঘটালেন গুলাম নবি আজাদ। এবার তিনি বললেন, সভানেত্রী হিসেবে সোনিয়া গান্ধীর দলের তরফে ১% সমর্থন নেই। পরোক্ষভাবে আজাদ জানান, যিনি এই মুহূর্তে কংগ্রেসের প্রেসিডেন্ট হিসেবে রয়েছেন তার পক্ষে দলের অধিকাংশ নেতার সমর্থন নেই। গোলাম নবী আজাদ এর এই বক্তব্য ঝড় তুলেছে আবারও।

কংগ্রেসের ওয়ার্কিং কমিটির বৈঠকের আগে সোনিয়া গান্ধীকে যে নেতারা চিঠি লিখেছিলেন তাদের মধ্যে অন্যতম গুলাম। এর আগে তিনি দলের অন্দরে নির্বাচন না হওয়া নিয়ে মন্তব্য করেছিলেন। জানিয়েছিলেন নির্বাচন না হলে কংগ্রেস আরো ৫০ বছর বিরোধী হিসেবে থাকবে। কিন্তু সোনিয়া গান্ধী সম্পর্কে তার মন্তব্য বিতর্ক বাড়িয়েছে আরো। তিনি মনে করেন, দলের অন্দরে নির্বাচন হওয়া প্রয়োজন। কারণ নির্বাচন হলেই ভবিষ্যৎ আরও উজ্জ্বল হবে। কিন্তু নির্বাচন না হলে কংগ্রেসকে আগামী বছরগুলোতে বিরোধী আসনেই থাকতে হবে। 

আজাদের কথায়, বিগত কিছু দশক ধরে আমরা দলে কোন নির্বাচন করিনি। হয়তো ১০-১৫ বছর আগে করা উচিত ছিল। কিন্তু এখন নির্বাচনের পর নির্বাচন আমরা হারছি। আমাদের যদি দলের শক্তি বাড়াতে হয় তাহলে এখন নির্বাচনের কোনো প্রয়োজন নেই। কংগ্রেস যদি পরবর্তী ৫০ বছর বিরোধী ক্ষমতায় থাকতে চায়, তাহলে এখন দলের অন্দরে নির্বাচনের প্রয়োজন একেবারেই নেই। 

কংগ্রেসের অন্তর্বর্তীকালীন সভাপতি সোনিয়া গান্ধীর উদ্দেশে ২৩ জন নেতা যে চিঠি লিখেছিলেন তার প্রধান দাবিই ছিল, কংগ্রেসের সভাপতির পদে একজন সর্বসময়ের, দৃশ্যমান ও কার্যকরী নেতা, সর্বস্তরে নির্বাচনের মাধ্যমে পদাধিকারী নিয়োগ এবং যৌথ সিদ্ধান্তের মধ্যে দিয়ে দল পরিচালনা। মিটিঙের দু’দিন আগে এই চিঠি ফাঁস হয়ে যাওয়ায় দলের অভ্যন্তরে উত্তেজনা চরমে ওঠে। এই চিঠি দিয়ে প্রকারন্তরে রাহুল গান্ধীকে কোণঠাসা করার চেষ্টা করা হচ্ছে এবং গান্ধীদের নেতৃত্বের প্রতি অনাস্থা প্রকাশ করা হচ্ছে বলে চিঠির স্বাক্ষরকারীদের বিরুদ্ধে অভিযোগ তোলা শুরু হয়। প্রবল আক্রমণের মুখে পড়তে হয় চিঠির স্বাক্ষরকারীদের।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here