ডেস্ক: ২০১৯ লোকসভা নির্বাচনের ঘন্টা বেজে গেছে ইতিমধ্যেই। লোকসভার সেই যুদ্ধে শাসকগোষ্ঠী বিজেপিকে ক্ষমতাচ্যুত করতে ইতিমধ্যেই রণসাজে লড়াইতে নামতে প্রস্তুত হচ্ছে বিরোধী শিবির। সেই কারণে বিরোধীদের একছাতার তলায় নিয়ে আসতে উঠেপড়ে লেগেছে জাতীয় কংগ্রেস। মঙ্গলবার বিরোধী দলনেতাদের নিয়ে নৈশ ভোজের আয়োজন করেছেন ইউপিএ চেয়ারপার্সন সোনিয়া গান্ধী। সেখানে আমন্ত্রিত রয়েছেন দেশের ১৭ টি রাজনৈতিক দল।

কংগ্রেসের তরফ থেকে জানা গিয়েছে এটা শুধু নৈশ ভোজ নয়। বিজেপির অপশাসনের বিরুদ্ধে একত্রিত হয়ে ফ্রন্ট গড়তে বিরোধী দলগুলিকে নিয়ে জোট গড়াই এই নৈশ ভোজের মূল উদ্দেশ্য। এদিনের এই বৈঠকে উপস্থিত থাকার কথা রয়েছে, ঝাড়খন্ডের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বাবুলাল মারন্ডি, এবং জেএমএম–এর হেমন্ত সোরেন। এছাড়াও এখানে উপস্থিত থাকবেন বিহারের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী জিতেনরাম মাঝিও, থাকছেন লালু প্রসাদ যাদবের ছেলে তেজস্বী যাদবও। তবে দার্জিলিংয়ে বাণিজ্য সম্মেলনে থাকার কারণে এই নৈশভোজে উপস্থিত থাকতে পারবেন না মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তবে তৃণমূলের তরফ থেকে সেখানে উপস্থিত থাকবেন সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়।

অন্যদিকে, বামেদের তরফ থেকে এই নৈশভোজে যোগ দেবেন সিপিএমের সীতারাম ইয়েচুরি এবং সিপিআইয়ের ডি রাজা। তবে এই অনুষ্ঠানে আমন্ত্রন জানানো হয়নি টিডিপিকে। কারন বিজেপি সরকারের থেকে সমর্থন তুলে নিলেও এখনও এনডিএ জোট ছেড়ে বেরোয়নি অন্ধ্রপ্রদেশের তেলেগু দেশম পার্টি। তবে মায়াবতীর বিএসপি দলকে এই সভায় আমন্ত্রন জানানো হলেও, এই নৈশভোজে তিনি যোগ দেবেন না বলে জানা গিয়েছে। দিল্লিতে ১০ জনপদের বাড়িতেই জাতীয় কংগ্রেসের তরফে আয়োজন করা হয়েছে এই নৈশভোজের।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here