kolkata news

 

নিজস্ব প্রতিনিধি: অভিনেত্রী সায়নী ঘোষ ও দেবলীনা দত্তকে লক্ষ্য করে কুরুচিকর আক্রমণ করলেন বিজেপি সাংসদ সৌমিত্র খাঁ। বৃহস্পতিবার পূর্ব বর্ধমান খণ্ডঘোষের সভায় দাঁড়িয়ে বিজেপি সাংসদ সৌমিত্র খাঁ বলেন, ‘কিছু আর্টিস্ট আছেন, তাঁরা কী বলছেন জানেন? তাঁরা বলছেন, এই যে বর্ধমানের শিব মন্দির, বুয়াইচণ্ডী কালী মন্দির, শিব মন্দিরে শিবলিঙ্গ থাকে, সেই শিবলিঙ্গে কন্ডোম পরিয়ে শিবপুজো করা হোক। আমাদের শিবলিঙ্গকে অপমান করছেন যারা, মা মনসাকে অপমান করছেন যারা তাঁরা অরিজিনাল যৌনকর্মী বলে আমি মনে করি।‘ শুধু তাই নয়, দেবলীনা, সায়নী ছাড়াও মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে উদ্দেশ্য করে কটাক্ষ করেন তিনি। বলেন, ‘মুখ্যমন্ত্রীকে জবাব দেওয়ার সময় এসেছে। না হলে এখানে একটাও মন্দির থাকবে না। না হলে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আপনাদের ঘাড় ধরে বের করে দেবেন।‘

সৌমিত্র খানের এই বক্তব্য সামনে আসতেই তীব্র প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয় সব মহলে। কয়েকদিন আগে টালিগঞ্জের শিল্পীমহল ধর্মতলায় একটি সভা করে বিজেপি’র বিরুদ্ধে তোপ দাগেন। সেই সভায় সবাই একযোগে বলেন, মহিলাদের জন্য খারাপ দিন আসছে এই বাংলায়। এদিন সেই প্রসঙ্গ উল্লেখ করে শিল্পীদের তোপ দাগেন সৌমিত্র। তাঁর এই বক্তব্য সামনে আসতেই তীব্র প্রতিক্রিয়া দিয়েছেন অভিনেত্রী সায়নী। একটি ফেসবুক পোস্টে তিনি সৌমিত্রকে তুলোধনা করেন।

ফেসবুকে যে পোস্ট করেছেন সায়নী, বানান অপরিবর্তিত রেখে তা এখানে হুবহু তুলে দেওয়া হল।

‘’সৌমিত্র বাবু, আপনার কষ্ট টা আমি বুঝি..

রাগে, শোকে আপনার ভারসাম্য হারানোটা খুবই স্বাভাবিক। আমি কে বা কি সেই সার্টিফিকেট টি আপনার কাছ থেকে আমি নেব না এবং আমি সব পেশাকেই সম্মান করি। ফলত, আপনি আমাকে বিশেষ ছোট করতে পারলেন না। তবে আপনি নিজে অনেকটা ছোট হলেন। এবার কাজের কথা বলুন, মন্দির, মসজিদ, গির্জা যা ইচ্ছে বানান, কিন্ত তার সাথে কয়েকটি স্কুল,কলেজ ,হাসপাতাল,কর্মক্ষেত্র তৈরি করতে পারলে, বাত বন যায়ে..ও ও হো বাত বন যায়ে।

কিন্তু না, আপনি সে নিয়ে কিছু বলতে পারবেন না.. কারণ আপনার কোন vision নেই, মানুষ কে সবসময় ভুল বোঝানো এবং ভাষণ পলিটিকসের বাদশা আপনি। by the way, scooty দেবেন খুব ভাল কথা, কিন্তু সেটা চলবে না তো, petrol diesel এর যা দাম… আপনি হয়ত ফ্রি তে পান তাই মাথা ঘামান না।

যা বুঝলাম মহিলাদের সম্মান করা আপনাদের রক্ততে নেই। এমনকি আপনার পরিবারের প্রাক্তন একজন কয়েকদিন আগেই এই অভিযোগটি করেছিলেন। আর আপনি এই কথাগুলো বলে সেটা আরো পরিস্কার করে দিচ্ছেন। যা বাংলার মা বোনেদের জন্য যথেষ্ট চিন্তার কারণ। আপনার ওপর মামলা করাই যায় কিন্তু বেফাস বা বোকা কথা বলার জন্য আপনার পার্টির লোক ই আপনাকে নিতে পারে না.. So, মোটামুটি সব বিষয়ই আপনার credibility=zero, তাই পাত্তা দিলাম না।

ঈশ্বরের কাছে প্রার্থনা করি আপনি তাড়াতাড়ি সুস্থ হয়ে উঠুন।  আর যারা আপনাকে ভোট দিয়ে জিতিয়েছেন তাদের পাশে একটু দাঁড়ান ও দায়িত্ববান হোন।

পুনশ্চ: আপনি সভাস্থল থেকে যেভাবে পুজো করার নিদান দিয়েছেন সেটা কেউ  এই  বাংলাতে কোনোদিনও বলেনি।  আর ভবিষ্যতেও বলবেনা।  কিন্তু এই প্রথম আপনার মুখ থেকে সেগুলো উচ্চারিত হলো।  সত্যিকারের ঈশ্বর বিশ্বাসী হলে এই কথা গুলো বানিয়ে বলতেও আপনি অনেকবার ভাবতেন।‘’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here