বীরভূম, নিজস্ব প্রতিনিধি: তিনি এলেন, দেখলেন, জয় করলেন। সোমবার জেলা সদর সিউড়ি জুড়ে দাদার আবেগ। আন্তঃজেলা সিনিয়র টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট ফাইনালে সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় সভাপতি হিসেবে মঠে আসার পরেই দাদাকে ঘিরে উদ্বেল জনতা। তিনি আবারও জয় করে নিলেন সবার হৃদয়। এদিন স্ট্রেট ব্যাটে দাদার ছক্কা- গ্রেগ চ্যাপেল সম্পর্কে নিজের আত্মজীবনীতে যা লিখেছেন ভিভিএস লক্ষ্মণ, সেই বিষয়গুলোকে আমি সমর্থন করি। সম্প্রতী প্রকাশিত হয়েছে লক্ষ্মণের আত্মজীবনী ‘২৮১ এন্ড বিয়ন্ড’।

পুরনো সেই দিনের কথা তুলে ধরে ভারতের ক্রিকেট ইতিহাসের সবচেয়ে আগ্রাসী ক্যাপটেন বলেন, আগামী দিনে সিউড়ির এই মাঠকে জুনিয়ার পর্যায়ের বিভিন্ন খেলার আয়োজন করতে দেওয়া হবে। সিউড়ির এই মাঠের পরিকঠামোরও এদিন প্রশংসা করেন সৌরভ। তাঁর প্রতিশ্রুতি আগামী দিনে ভারত বাংলা দেশের মধ্যে আমন্ত্রিত ম্যাচেরও আয়োজন করা হতে পারে।
এমনিতে ক্রিকেট দুনিয়ায় কূটনীতিক হিসেবে চ্যাপেলের খ্যাতি রয়েছে। আজও আন্ডার আর্ম ডেলিভারি গ্রেগের মস্তিষ্ক প্রসূত ভাবা হয়। সেই গ্রেগ প্রসঙ্গে আবারও সিউড়িতে স্ট্রেট ব্যাটে ছয় হাঁকালেন সৌরভ রাহুলের পাসে দাঁড়ানোর বার্তা দিলেন সিউড়িতে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here