নিজস্ব প্রতিবেদক, বারাকপুর: রেস্তোরাঁয় পচা মাংস দিয়ে খাবার বানানোর অভিযোগ, আর তার জেরেই ওই রেস্টুরেন্টে ঢুকে ভাঙচুর চালালো একদল যুবক । রবিবার রাতে ঘটনাটি ঘটেছে উত্তর২৪ পরগণার বারাকপুর এলাকায়। শহরব্যাপী ভাগাড়ে মাংসের পর এই ঘটনার জেরে ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে ওই এলাকায়।

সূত্রের খবর, রবিবার রাতে বারাকপুর বারাসাত রোডের উপর অবস্থিত কারী ক্লাব নামের ওই রেস্তোরাঁ থেকে খাবার কিনে নিয়ে যায় বেশ কয়েকজন যুবক। কিন্তু খানিক্ষন পর ফের তারা ওই রেস্তরাঁয় খাবার সহ ফিরে আসে এবং দোকানকর্মীদের সঙ্গে বচসা ও মারামারি শুরু করে। ঘটনার সময় দোকানের মালিক সুকান্ত সরকার দোকানে ছিলেন না। পরে তিনিও ঘটনাস্থলে ছুটে আসেন। রেস্তোরাঁয় ভাঙচুরের খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে আসেন বারাকপুর পুরসভার পুরপ্রধান উত্তম দাস এবং টিটাগড় থানার পুলিশও। পুলিশ এসে উত্তেজিত জনতাকে শান্ত করে এবং ওই রেস্তোরাঁর খাবার বাজেয়াপ্ত করা হয়। উত্তেজিত জনতার রোষের হাত থেকে উদ্ধার করে রেস্তোরাঁর মালিক সুকান্ত সরকারকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় নিয়ে যায় পুলিশ।

পুলিশ সূত্রের খবর, রেস্তোরাঁ থেকে বিক্রি করা মাংসের নমুনা পরীক্ষা করে দেখা হবে। এপ্রসঙ্গে, বারাকপুর পুরসভার পুরপ্রধান উত্তম দাস বলেন, ‘রেস্টুরেন্টে মাংসের খাবার নিয়ে একটা অভিযোগ উঠেছে। যার জন্যই উত্তেজিত কিছু মানুষ এই রেস্টুরেন্টের আসবাবপত্রে ভাঙচুর চালায়। পরে আমি আসি, টিটাগড় থানার পুলিশও আসে। বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে রেস্টুরেন্টের মাংসের খাবার। তা পরীক্ষা করে দেখা হবে। তবে এই রেস্টুরেন্টে এর আগে কখনো এরকম পচা মাংসের খাবার বিক্রির অভিযোগ ওঠেনি। পুলিশ ওই খাবার পরীক্ষা করে দেখবে, গুণগতমানে ত্রুটি থাকলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে বারাকপুরের প্রসিদ্ধ এই রেস্টুরেন্ট কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here