মহানগর ওয়েবডেস্ক: আপাতত কেরিয়ারের সবচেয়ে সুখের সময় টা উপভোগ করছেন পরিচালক সৃজিত মুখার্জী। হাতে রয়েছে একাধিক সিনেমার কাজ, সদ্য ৬৬ তম জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারের তালিকাতে, সেরা বাংলা ছবি হিসাবে খেতাব পেয়েছে তাঁর পরিচালিত ‘এক যে ছিল রাজা’ সিনেমাটি। এবার চলতি বছরের তাঁর অন্যতম সেরা হিট থ্রিলার সিনেমা ‘ভিঞ্চি দা’ পেল বিশেষ সম্মান। ১৩ তম এশিয়া প্যাসিফিক স্ক্রিন অ্যাওয়ার্ডে তাঁর পরিচালিত ‘ভিঞ্চি দা’, প্রতিযোগীতার জন্য নথিভুক্ত হয়েছে। চলতি বছরের ব্রিসেবেনে অনুষ্ঠিত হবে এই প্রতিযোগীতা। সেইখানেই ‘ভিঞ্চি দা’ যাচ্ছে প্রতীযোগীতার দৌড়ে। এদিন এই খুশির খবর নিজেই জানিয়েছেন পরিচালক সৃজিত মুখার্জী। তাঁর টুইটার হ্যান্ডেল থেকে টুইট করে সৃজিত মুখার্জী জানিয়েছেন এই ঘটনাটি। পাশাপাশি এই সাফল্যের জন্য ‘ভিঞ্চি দা’ টিমের সকলকেই ধন্যবাদ জানান সৃজিত।

‘ভিঞ্চি দা’ সিনেমাতে অভিনয় করতে দেখা গিয়েছে ঋত্বিক চক্রবর্তী, অনির্বাণ ভট্টাচার্য, ঋদ্ধি সেন, রুদ্রনীল ঘোষ ও সোহিনি সরকারকে। একজন দুর্ধষ মেক আপ শিল্পী ‘ভিঞ্চি দা’-কে ঘিরে গল্পের সূত্রপাত। যিনি নিজের লড়াই চালাচ্ছেন বেঁচে থাকার জন্য। কিন্তু হঠাৎ করেই তাঁর হাতে চলে আসে কাজের সুযোগ কিন্তু পড়েন এক মহা শয়তানের খপ্পরে। সিরিয়াল কিলার আদি বোসের খপ্পরে পড়ে জীবন পাল্টে চায় ‘ভিঞ্চি দা’। এই সিনেমার আগেও সৃজিতের জাতীয় পুরস্কার প্রাপ্ত সিনেমা ‘এক যে ছিল রাজা’ দেশে-বিদেশের বহু ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল ও অ্যাওয়ার্ড শোতে প্রতিযোগীতায় গিয়েছিল। তাঁর আগামী সিনেমা ‘গুমনামি’ প্রমোশন নিয়ে বেজায় ব্যস্ত রয়েছেন সৃজিত। কিছুদিন আগেই মুক্তি পেয়েছে এই সিনেমার পোষ্টার ও টিজার। মুক্তি পাবে চলতি বছরের পুজোতে। ‘ভিঞ্চি দা’ সিনেমাটি প্রযোজনা করেছে এসভিএফ।

‘গুমনামি’ মূলত তৈরি করা হয়েছে ভারতের স্বাধীনতা সংগ্রামী নেতাজি সুভাষচন্দ্র বোসের উপর। এই সিনেমাতে নেতাজির অন্তর্ধানের কারণ হিসাবে তিনটি ঘটনাকে দেখানো হয়। প্রথম রাশিয়ার হাতে বন্দি হয়ে মৃত্যুবরণ, দ্বিতীয় তাইহুকোর তাইওয়ান বিমানবন্দরে বিমান দুর্ঘটনাতে প্রাণ হানি হয় নেতাজির। তৃতীয় বিমান দুর্ঘটনাতে গুরুতর জখম হয়েও প্রাণে বেঁচে ভারতে ফেরেন কিন্তু একজ সাধুর বেশে যার নাম ‘গুমনামি বাবা’ এবং ১৯৭০ সাল থেকে ৮০ সাল পর্যন্ত মৃত্যুবরণ করেন উত্তরপ্রদেশের ফাজিয়াবাদে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here