kolkata bengali news

বিশেষ প্রতিবেদক, জলপাইগুড়ি: অশান্তির রাজা পাহাড়ে ফিরলে বিচ্ছিন্নতাবাদী আন্দোলন মাথা চাড়া দিয়ে ওঠার পাশাপাশি যে ফের পাহাড়ের শান্তি ও উন্নয়ন বিঘ্নিত হবে সেটা বেশ বিলক্ষণই জানে রাজ্য সরকার। তাই কোন ভাবেই বিমল গুরুং যাতে তার বিরুদ্ধে দায়ের হওয়া মামলাগুলিতে জামিন না পান তার জন্য কোমর বেঁধে নেমে পড়ল রাজ্য সরকার। জলপাইগুড়িতে হাইকোর্টের সার্কিট বেঞ্চে গোর্খা জনমুক্তি মোর্চার প্রাক্তন সভাপতি বিমল গুরুংয়ের বিরুদ্ধে ৭০টি মামলা বিচারধীন রয়েছে। সেই মামলাগুলিতে যাতে গুরুং কোন ভাবেই জামিন না পান তার জন্যই এখন আদাজল খেয়ে নেমে পড়েছেন রাজ্যের আইনজীবীদের পাশাপাশি গুরুংয়ের বিরুদ্ধে দায়ের হওয়া মামলাগুলিত তদন্তকারী পুলিশ আধিকারিকেরা।

বৃহস্পতিবার জলপাইগুড়ি হাইকোর্টের সার্কিট বেঞ্চে বিমল গুরুংয়ের বিরুদ্ধে বিচারধীন ৭০টি মামলার ওঠার কথা থাকলেও তা এদিন ওঠেনি আইনজীবীদের কর্মবিরতি থাকার জন্য। বাড়তি এই একদিন সময়কেই কাজে লাগাতে কোমর বেঁধে নেমে পড়েছে রাজ্য সরকার। এদিন গুরুংয়ের জামিন রুখতে সরকারী আইনজীবীরা একটি বিশেষ বৈঠক সেরে ফেললেন গুরুংয়ের বিরুদ্ধে দায়ের হওয়া মামলাগুলির সঙ্গে যুক্ত তদন্তকারী অফিসারদের নিয়ে। বিমল গুরুং যাতে কোনও ভাবেই জামিন না পায় সেটা নিশ্চিত করতেই এই বিশেষ বৈঠকের আয়োজন করা হয়েছিল।

এদিন দার্জিলিংয়ের সমস্ত তদন্তকারী অফিসারদের নিয়ে বৈঠক করেন সরকারি আইনজীবীরা। মোট ৪০ জন তদন্তকারী অফিসারদের নিয়ে এদিন জলপাইগুড়ি সার্কিট হাউজে এই বৈঠক চলে। সার্কিট বেঞ্চের অ্যাডিশনাল পাবলিক প্রসেকিউটার অদিতি শঙ্কর চক্রবর্তী জানান, আজকের বৈঠকে তদন্তকারী আধিকারিকদের সঙ্গে মামলাগুলোর বিষয়বস্তু নিয়ে আলোচনা হয়। আদালতে কোন তথ্য তুলে ধরা যেতে পারে, সে বিষয়েও আলোচনা হয়। বেশির ভাগ মামলার চার্জশিট তৈরি হয়ে গেছে বলেও তিনি জানান।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here