ডেস্ক: পুরসভার অন্দরে ঘোঘের বাসা। দীর্ঘদিন ধরে ওঠা এই অভিযোগকে প্রাধান্য দিয়ে ইতিমধ্যেই পুরসভার সমস্ত কাজকর্মে লাগামটেনেছে নবান্ন। এরইমাঝে পুরনিয়োগে কোনওরকম দুর্নীতি এড়াতে তৎপর হল রাজ্য সরকার। রাজ্যসরকারের তরফে জানানো হয়েছে, ইচ্ছামতো কর্মী নিয়োগ নয় এখন থেকে পুরসভায় চাকরি পেতে গেলে অন্যান্য সরকারি চাকরির মতো এখানেও দিতে হবে পরীক্ষা। পুরসভায় অস্থায়ী কর্মী নিয়োগ আর থাকছে না পুরো বোর্ডের হাতে।

সরকারের তরফে জানানো হয়েছে, এখন থেকে যেভাবে স্কুল সার্ভিস কমিশন বা পাবলিক সার্ভিস কমিশনের মতো স্বশাসিত সংগঠনের দ্বারা সরকারি চাকরি বা বিদ্যালয়গুলিতে নিয়োগ হয়, সেভাবেই এবার থেকে রাজ্যের সব পুরসভাগুলিতেও নিয়োগ করা হবে। সমস্ত নিয়ম মেনে হবে পরীক্ষা, সেই পরীক্ষায় পাস করলেই প্যানেলে নাম উঠবে, তারপরেই মিলবে চাকরি। এই নিয়ম চালু করতেই ইতিমধ্যেই উঠে পড়ে লেগেছে রাজ্য সরকার। মন্ত্রীসভাও এবিষয়ে অনুমোদন দিয়ে দিয়েছে, বিধানসভার আগামী অধিবেশনেই এই সংক্রান্ত বিল আনতে চলেছে রাজ্য। বিল পাস হলেই তা দ্রুত কার্যকর করবে সরকার।

পুরসভার কর্মি নিয়োগ নিয়ে দুর্নীতির অভিযোগ দীর্ঘদিনের। অভিযোগ ছিল নিজেদের ইচ্ছামতো কর্মী নিয়োগ করত পুরসভা। এতদিন পর্যন্ত, পুরকর্মী নিয়োগ করা হত ডিএলবি বা ডিরেক্ট লোকাল বডির মাধ্যমে। কোনও পুরসভার কর্মী নিয়োগের প্রয়োজন হলে তারা ডিএলবি–কে জানাত। তারপর সংবাদপত্রে বিজ্ঞাপন দেওয়া হত। সেখান থেকে নিয়োগ করা হত। আর এখানেই চলত দুর্নীতি। সেগুলিকে বন্ধ করেতে এবার উদ্যোগ নিল রাজ্য।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here