দুর্ঘটনায় আহতদের দ্রুত হাসপাতালে পৌঁছে দেবে ‘পথবন্ধু’! অ্যাপের লোগোর সৃষ্টি মুখ্যমন্ত্রীর হাতেই

0
307
kolkata bengali news

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: পথ দুর্ঘটনা রোধে রাজ্য সরকার আগেই চালু করেছিল ‘সেফ ড্রাইভ, সেভ লাইফ’ প্রকল্প। সেই প্রকল্পে রাজ্যে পথ দুর্ঘটনা এবং প্রাণহানির সংখ্যায় রাশ টানা অনেকটাই সম্ভব হয়েছে। এবার সেই লক্ষ্যে আরও এক পদক্ষেপ নিল সরকার। হাইওয়েতে কোনও দুর্ঘটনা ঘটার পরে পুলিশ, অ্যাম্বুলেন্স সকলের সঙ্গে যোগাযোগ করে আহতদের হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার ক্ষেত্রে অনেক সময় দেরী হয়ে যায়। ফলে চিকিৎসার পরিভাষায় যাকে গোল্ডেন আওয়ার বলে, তার জন্য সময় পাওয়া যায় না। এই সমস্যার সমাধানের জন্য মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মস্তিস্কপ্রসূত ‘পথবন্ধু’ অ্যাপ নিয়ে আসতে চলেছে রাজ্য সরকার। সূত্রের খবর, অ্যাপের লোগোটি তৈরি করেছেন মাননীয় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নিজেই।

‘চিকিৎসক দিবস’ উপলক্ষে এক অনুষ্ঠানে একথা জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। এই অ্যাপের মাধ্যমে কোনও দুর্ঘটনা ঘটলে সঙ্গে সঙ্গে তা ট্র্যাফিক পুলিশ, স্থানীয় থানা এবং অ্যাম্বুল্যান্সকে জানানো যাবে। সেই অনুসারে দুর্ঘটনাগ্রস্তদের দ্রুত চিকিৎসা পরিষেবা পৌঁছে দেওয়া সম্ভব হবে। প্রথমে শহরের দুর্ঘটনাপ্রবণ এলাকাগুলি ব্ল্যাক-স্পট হিসাবে চিহ্নিত করা হবে। রাস্তার ধারের হকার ও চায়ের দোকানদারদের প্রাথমিক চিকিৎসার বিশেষ প্রশিক্ষণ দেবে রাজ্য সরকার। হাইওয়েতে মোটামুটি ১৫ কিলোমিটার অন্তর একটি করে ধাবা বা চায়ের দোকান বেছে নিয়ে সেখানকার কর্মীদের প্রাথমিক চিকিৎসা করার ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে।

প্রশিক্ষণ দেওয়ার ক্ষেত্রে হৃদ্‌যন্ত্র সচল রাখা, রক্তপাত বন্ধ করা ইত্যাদির উপরে জোর দেওয়া হবে। সেইসঙ্গে তাঁদের দেওয়া হবে বিশেষ মেডিক্যাল কিট। এই মেডিক্যাল কিট সব সময় দোকানেই রাখতে হবে। উদ্দেশ্য আপৎকালীন পরিস্থিতিতে যাতে দুর্ঘটনাগ্রস্তদের দ্রুত প্রাথমিক চিকিৎসা শুরু করা যায়। এছাড়া এই সমস্ত দোকানিদের স্মার্টফোনে ‘পথবন্ধু’ অ্যাপ ইনস্টল করে দেওয়া হবে। এছাড়া পথদুর্ঘটনা বা জরুরি পরিস্থিতিতে মানুষের জীবন বাঁচাতে ও প্রথমিক চিকিৎসা দিতে নতুন স্বাস্থ্য সাথীর দল গড়ে তোলা হবে বলেও এদিন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here