ডেস্ক: পশ্চিমবঙ্গে স্বমহিমায় হাজির গ্রীষ্মকাল। আম, কাঁঠালের ডালি সাজিয়ে হাজির গ্রীষ্ম। সঙ্গে রোদ, লু, উষ্ণতা। হতে পারে জলশূন্যতার মতো রোগ থেকে শুরু করে প্রাণঘাতী সানস্ট্রোক পর্যন্ত। এই পরিবেশে স্বাস্থের দিকে একটু নজর দিন। এই গরমে কীভাবে যত্ন নেবেন নিজের? বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ পড়ে নিন ‘মহানগর’-এর পাতায়:

  • সরাসরি রোদ এড়িয়ে চলুন। ছাতা, সানগ্লাস, সানস্ক্রিন ব্যবহার করুন। সানস্ক্রিন ইউভি রে বিচ্ছুরণজনিত ত্বকের ক্ষতিকে রোধ করে। স্পর্শকাতর ত্বকের জন্য মিনেরাল সম্পন্ন সানস্ক্রিন ব্যবহার করা উপযোগী। সকাল ১০টা থেকে দুপুর ৪টের রোদ এড়িয়ে চলুন। ট্যালকম পাউডার, ক্রীম, তেল কম ব্যবহার করুন। ব্যবহার করুন রোদচশমা।
  • গ্রীষ্মে ঘাম হয়ে শরীরের জল বেড়িয়ে যায়। ফলে জলশূন্যতা দেখা দিতে পারে। ক্ষিদে কমিয়ে দেয়। সারাদিনে যতটা সম্ভব বেশী করে জল পান করুন। শুধু জল নয় ডায়েটে রাখুন ডাব, লস্যি, ফলের রস, নুন-চিনির জল ইত্যাদি তরল পানীয়।
  • বেশী তেল-মশলাদার খাবার কম খান। এই ধরনের ভাজা খাবার হজম হতে কষ্ট হয়। ফলে শরীরে ক্লান্তি আসে। ত্বকের উপরও এর প্রভাব পড়ে। বাইরের খাবার এড়িয়ে চলুন। একবারে বেশি পরিমাণে খাবেন না, বারে বারে খান। সহজপাচ্য খাবার খাওয়ার চেষ্টা করুন।
  • ঢিলাঢালা জামাকাপড় পরুন। অতিরিক্ত চাপা পোশাক এড়িয়ে চলুন। হাত-পা যতটা সম্ভব ঢাকা রাখার চেষ্টা করুন। হালকা রঙের পোশাক পরুন এবং সুতির জিনিস ব্যবহার করুন।
  • চা এবং কফি অতিরিক্ত পরিমাণে খাবেন না। ধূমপান ও মদ্যপানও এড়িয়ে যাওয়ার চেষ্টা করুন। চা, কফি, মদ প্রস্রাবের মাত্রা বাড়িয়ে দেয়। ফলে শরীরের প্রয়োজনীয় জল বেড়িয়ে যায়।
  • ঘরে হাওয়া-বাতাস যাতায়াতের সুযোগ রাখুন। রোদ থেকে সরাসরি এসি ঘরে এসে ঢুকবেন না। একই রকমভাবে এসি ঘর থেকে বেড়োনোর আধ ঘন্টা আগে এসি বন্ধ করে দিন।

এছাড়াও ব্যায়াম করার অভ্যাস করুন। যে কোনো রকম শারীরিক অস্বস্তির ক্ষেত্রে চিকিৎসককে যোগাযোগ করুন, পরামর্শ নিন। ফেলে রাখবেন না।

আবহবিদদের মতে, বঙ্গে এবছর পারদ চড়বে ৪০ ডিগ্রি বা তারও বেশি। এরকম উষ্ণ পরিবেশে নিজের স্বাস্থ্যের খেয়াল রাখুন। ভালো থাকুন। সুস্থ থাকুন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here