kolkata bengali news

নিজস্ব প্রতিবেদক, দুর্গাপুর: তৃণমূল কংগ্রেসের দলীয় দফতরের কাছে একটি জমির ওপর কনস্ট্রাকশনকে ঘিরে সংঘর্ষের ঘটনায় রণক্ষেত্রের চেহারা নিল রাজ্যের ইস্পাতনগরী বলে সুপরিচিত দুর্গাপুরের আমরাই এলাকা। ঘটনার জেরে গুরুতর জখম এক ব্যবাসায়ীকে দুর্গাপুর মহকুমা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। মঙ্গলবার রাতের এই ঘটনার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে আসে বিশাল পুলিশ বাহিনী। এলাকায় উত্তেজনা থাকায় নামানো হয় কমব্যাট ফোর্সও।

জানা গিয়েছে, মঙ্গলবার রাতে দুর্গাপুর পুরনিগমের ১২নং ওয়ার্ডের আমরাই দুর্গা মন্দির এলাকায় একটি দোকান ঘর তৈরি করাকে কেন্দ্র করে বিবাদ বাধে শাসক দলের দুই গোষ্ঠীর। এলাকাবাসীর অভিযোগ, তৃণমূল কংগ্রেসের দুই গোষ্ঠী সেখ সাহাবুদ্দিন ও সেখ আমিনুল ইসলামের সমর্থকদের মধ্যে বিবাদের জেরেই এই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। বিবাদ চলাকালীন সময়ে তৃণমূল নেতা আজিমউদ্দীন ও তার দলবল সেখ সফি নামে এক ব্যবসায়ীকে বেধড়ক মারধর করে। ওই ব্যবসায়ীর একটি নির্মীয়মাণ দোকানঘর নিয়েই তাদের মধ্যে বিবাদ বেধেছিল। লাঠিসোটা দিয়ে মারধরের জেরে সেখ সফি ঘটনাস্থলে অজ্ঞান হয়ে পড়ে যান। এলাকার লোকজনই তাকে উদ্ধার করে দুর্গাপুর মহকুমা হাসপাতালে নিয়ে আসে।

 

খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে আসেন আসানসোল-দুর্গাপুর পুলিশ কমিশনারেটের ডিসি(পূর্ব) অভিষেক মোদি সহ বিশাল পুলিশ বাহিনী। নামানো হয় কমব্যাট ফোর্সও। খবর পেয়ে আসেন মেয়র পারিষদ প্রভাত চ্যাটার্জীও। দলের গোষ্ঠীকোন্দলের ঘটনার জেরে তিনি বলেন, ‘এখানে কোন গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব নেই। বিষয়টির পেছনে সিপিএম আর বিজেপির হাত রয়েছে। তবে পুলিশকে বলে হয়েছে বিষয়টি দেখতে। যদি কেউ আইন ভাঙ্গে তাহলে আইন আইনের পথে চলবে। পুলিশ নিজের কাজ করবে। যেই দোষী হোক কাউকেই রেয়াত করা হবে না।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here