মহানগর ওয়েবডেস্ক: ভারতের ও বিশ্বের সর্বকালের অন্যতম সেরা ব্যাটসম্যান সুনীল গাভাস্কর। দেশের প্রাক্তন কিংবদন্তি ব্যাটসম্যান ও অধিনায়ক তাঁর কেরিয়ারের অজানা কথা লিখলেন ‘মিড ডে’র কলামে।

সালটা ১৯৭৮-৭৯। হাফ ডজন ম্যাচের টেস্ট সিরিজ খেলতে ভারতে এসেছিল ভয়ঙ্কর ওয়েস্ট ইন্ডিজ দল। গাভাস্কারের নেতৃত্বে ভারত ১-০ টেস্ট সিরিজ জিতেছিল। চেন্নাই টেস্টে তিন উইকেটে জেতে টিম। শুধু সিরিজ জেতানোই নয়, গাভাস্কর ব্যাটে রানের বন্যা হয়েছিল। সেই সিরিজে ৭৩২ রান করেন তিনি। কিন্তু এরপরেও গাভাস্করকে সরিয়ে বিসিসিআই এস ভেঙ্কটরাঘবনকে ক্যাপ্টেন করে।

গাভাস্কর আজও জানেন না কেন তাঁকে সরতে হয়েছিল। তিনি দৈনিকে লিখেছেন, ” ১৯৭৮-৭৯ মরসুমে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে সিরিজ জিতলাম, ৭০০-র ওপর রান করলাম। আমাকে এরপর ক্যাপ্টেনসি থেকে সরিয়ে দেওয়া হলো। আজও তার কারণ জানি না। হতে পারে কেরি প্যাকার ওয়ার্ল্ড সিরিজ ক্রিকেটে যোগ দেওয়ার প্রস্তাবের রাস্তা খুলে গেছিল তাই। কিন্ত আমি বিসিসিআইয়ের চুক্তি সই করে নিজের আনুগত্য বুঝিয়ে ছিলাম।”

গাভাস্কর আরও জানান যে, পাকিস্তানের বিরুদ্ধে খারাপ পারফরম্যান্সের জন্য বিষেণ সিং বেদীকে উইন্ডিজ সিরিজে দল থেকে ছেঁটে ফেলা হচ্ছিল। গাভাস্কর রীতিমতো ঝগড়া করে বেদীকে দলে রাখেন। লিটল মাস্টার লিখছেন, “বেদীর জায়গায় আমি যখন ক্যাপ্টেন হয়ে আসি তখন বিসিসিআই ওকে সোজা দল থেকে বাদ দিয়ে দিচ্ছিল, আমি বোর্ডকে বোঝাই ও খারাপ খেললেও এখনও দেশের সেরা লেগ স্পিনার। একপ্রকার ওরা নিমরাজি হয়েই ওকে ওয়েস্ট ইন্ডিজের জন্য প্রথম টেস্টে দলে রাখে।”

গাভাস্কর আরও জানিয়েছেন যে, তিনি যখন পরের দিকে অস্ট্রেলিয়া ও পাকিস্তানের বিরুদ্ধে হোম সিরিজের জন্য ফের দেশের ক্যাপ্টেন হলেন, তখন তিনি চেয়েছিলেন যে, ধীরজ প্রসন্ন ও সদ্য প্রয়াত রাজিন্দর গোয়েলকে দলে ঢোকাতে। কিন্তু নির্বাচকরা তাঁর কথায় কান দেননি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here