নিজস্ব প্রতিবেদক, বর্ধমান: স্কুলে যাবার নাম করে ৫বন্ধু স্কুলে না গিয়ে স্কুলের পোশাক পরেই চলে দামোদরে স্নান করতে। ৫জনের কেউই ভাল করে সাঁতার জানত না। এখন সে নদ ভরা বর্ষার খরস্রোত রূপ না নিলেও কোথাও হাঁটু জল আবার কোথাও ২৫-৩০ফুট গভীর জল নিয়ে দাঁড়িয়ে। তাতেই নেমে পড়ে চারজন। কিন্তু চোরাস্রোতে পড়ে তলিয়ে যাতে থাকে চারজন। তা দেখে পাড়ে থাকা বন্ধু কোনরকমে নৌকার দড়ি ছুঁড়ে দেয় তার দিকে। সে দড়ির নাগাল তিনজনের হাতে এলেও তলিয়ে যায় একজন। সোমবার বেলা দেড়টা নাগাদ এই দুর্ঘটনা ঘটে পূর্ব বর্ধমান জেলার মেমারি থানার পাল্লা এলাকায় দামোদর নদের সাড়ে পাঁচ নম্বর ঘাটে।

মৃত ওই স্কুল ছাত্রের নাম সুদীপ্ত রায়(১৭)। বাড়ি মেমারি থানার করন্দা গ্রামে। ঘটনা ঘটার সঙ্গে সঙ্গে মেমারি থানার পুলিশ ও মেমারি-১ ব্লকের বিপর্যয় মোকাবিলা দফতরের অভিজিৎ বন্দোপাধ্যায়ের নেতৃত্ব ডুবুরি নিয়ে তল্লাশি শুরু হয় দামোদরের ওই এলাকায়। কিন্তু অনেক রাত অবধি তল্লাশি চালানো হলেও সুদীপ্তের দেহের সন্ধান মেলেনি। পরে মঙ্গলবার ভোররাতে তার দেহ ভেসে ওঠে দুর্ঘটনাস্থলের কাছেই। ঘটনার জেরে শোকের ছায়া নেমেছে করন্দা গ্রামে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here