kolkata news

 

নিজস্ব প্রতিনিধি, উত্তর দিনাজপুর: উচ্চশিক্ষা নিতে রাজস্থানে কোটায় গিয়ে চরম বিপাকে পড়েছেন উত্তর দিনাজপুর জেলার ৭৪ জন পড়ুয়া। সন্তানদের ফিরিয়ে আনার জন্য মুখ্যমন্ত্রীর কাছে অবিভাবকদের কাতর আবেদন। এই আবেদনের পর মুখ্যমন্ত্রী টুইট করে রাজস্থানে কোটা থেকে ছাত্রদের ফিরিয়ে আনার আশ্বাস দিয়েছেন। ফলে বাবা-মায়ের দুশ্চিন্তা দূর হয়ে গেছে।

উত্তর দিনাজপুর জেলা থেকে কেউ ডাক্তারি আবার কেউ ইঞ্জিনিয়ারিং পড়তে রাজস্থানে কোটায় গিয়েছিলেন। গত ২৯ মার্চ পড়া শেষ করে বাড়িতে ফেরার কথা ছিল। কিন্তু সব ওলোটপালট হয়ে গেল করোনা ভাইরাসের থাবায়। গত ২০ মার্চ থেকে শুরু হয়েছে লকডাউন পিরিয়ড। লকডাউন পিরিয়ডে যান চলাচল বন্ধ হয়ে গেছে। উত্তর দিনাজপুর জেলার কালিয়াগঞ্জের উত্তর চিড়াইল পাড়ার বাসিন্দা দেবব্রত দত্ত এক মাত্র সন্তান দেবজিৎ দত্তকে উচ্চশিক্ষার জন্য রাজস্থানের কোটায় ভর্তি করেছিলেন। দেবব্রতবাবু কালিয়াগঞ্জে সারের ব্যবসা করেন। সেই আয় থেকেই ছেলেকে বড় করার স্বপ্ন দেখছিলেন। দেশ জুড়ে লকডাউনে সেই স্বপ্নে বড়সড় আঘাত এসেছে।

দীর্ঘ লকডাউনে দেশের বিভিন্ন রাজ্য থেকে সরকারি ভাবে উদ্যোগ গ্রহণ করে সেই রাজ্যের ছাত্রদের কোটা থেকে বাড়িতে ফিরিয়ে নিয়ে গেছে। পড়ে রয়েছে শুধুমাত্র পশ্চিমবঙ্গের ছাত্ররা। বিশাল হস্টেলে দেবব্রতবাবুর একমাত্র সন্তান রয়েছে। বাকিরা বিভিন্ন জায়গায় রয়েছেন। বাবা মায়ের কাছে সন্তানদের আবদার কবে তাদের বাড়িতে ফিরিয়ে নিয়ে যাওয়া হবে? বাবা-মা সন্তানকে কোনওভাবেই আশ্বস্ত করতে পারছিলেন না। আজ সন্তানদের ফিরিয়ে আনার দাবিতে উত্তর দিনাজপুর জেলাশাসকের দ্বারস্থ হয়েছিলেন অবিভাবকরা।

এদিকে, মুখ্যমন্ত্রী টুইট করে রাজস্থানে কোটা থেকে ছাত্রদের ফিরিয়ে আনার আশ্বাস দিয়েছেন। কবে তাদের ফিরিয়ে আনবেন তার কোনও দিনক্ষণ ঘোষণা করেননি। হস্টেলে একদিন পার করাই তাদের পক্ষে এখন দুষ্কর হয়ে পড়েছে। ফলে সন্তানের অবিভাবকদের নাওয়াখাওয়া ভুলে সরকারের দিকে তাকিয়ে আছেন। কবে সরকার ফিরিয়ে আনবে সন্তানদের।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here