Home Featured স্টাডি সেন্টার শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের আড়ালে প্রতারণার জাল বিস্তারের অভিযোগ, পুলিশের জালে আটক তিন

স্টাডি সেন্টার শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের আড়ালে প্রতারণার জাল বিস্তারের অভিযোগ, পুলিশের জালে আটক তিন

0
স্টাডি সেন্টার শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের আড়ালে প্রতারণার জাল বিস্তারের অভিযোগ, পুলিশের জালে আটক তিন
Parul

নিজস্ব প্রতিনিধি: এবার শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের আড়ালে আবারও প্রতারণার জাল বিস্তারের অভিযোগ নদিয়ার কল্যাণীতে। চাকরি দেওয়ার নাম করে নেহেরু স্টাডি সেন্টার শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের আড়ালে প্রতারকরা বিছিয়ে ছিল প্রতারণার জাল এমনটাই অভিযোগ ওই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের পাঠরত চাকরিপ্রার্থী ছাত্র-ছাত্রীদের ।

ঘটনাটি ঘটেছে কল্যাণী রেল স্টেশন সংলগ্ন এফ-ব্লক। চুক্তিপত্রের মাধ্যমে বাড়ি ভাড়া নিয়ে স্টাডি সেন্টারটি করা হয়। এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ছাত্র-ছাত্রীর সংখ্যা প্রায় ৭০০ বেশি। কর্মক্ষেত্র পেপারে বিজ্ঞাপন দেখেই তারা যোগাযোগ করে। গত ২ মাস আগে কর্মক্ষেত্র পেপারে বিজ্ঞাপন দেওয়া হয়েছিল কেন্দ্র সরকারের উপকূল রক্ষা বাহিনীতে চাকরির জন্য। বিজ্ঞাপনে জানানো হয়েছিল কোর্স ফি লাগবে না। অনলাইনের মাধ্যমেই ক্লাস করানো হবে। ৪ মাসের কোর্স শেষে মিলবে চাকরি তাছাড়াও মিলবে ১০,০০০ টাকার স্টাইপেন।

সেই বিজ্ঞাপন দেখে রাজ্যের বিভিন্ন জেলার একাধিক বেকার যুবক যুবতীরা ফর্ম ফিলাপ করেন । প্রথম তাদেরকে জানানো হয়েছিল বিনামূল্যে ক্লাসের কথা।  প্রাথমিকভাবে তাদের থেকে এডমিশন ফ্রী হিসাবে নেওয়া হয়েছিল ২১০ টাকা ফরম ফিলাপ করার জন্য। পরবর্তীতে প্রাথমিক ভেরিফিকেশনে নাম তোলার জন্য জন্য ১৯৫০ টাকা চাওয়া হয়। আবার পরবর্তীতে ১২০০০ টাকা দ্বিতীয় ভেরিফিকেশনে নাম তোলার জন্য চাওয়া হয় এমনটাই অভিযোগ ছাত্র-ছাত্রীদের।

বিষয়টি সম্পর্কে বিস্তারিত জানার চেষ্টা করলেই বিষয়টি এড়িয়ে যায় কর্তৃপক্ষ। আর তার ফলেই তাদের মনে সন্দেহের দানা বাঁধে। কারণ এর আগেও অনেক কয়েকবার রাজ্যে চাকরি দেওয়ার নাম করে একাধিক বেকার যুবক-যুবতীরা প্রতারণার শিকার হয়েছেন। সেই প্রতারণার সন্দেহ করে ছাত্র-ছাত্রীরা কল্যাণী প্রশাসনকে বিষয়টি জানায়।

প্রশাসন ঘটনাস্থলে গিয়েই তিনজনকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য। এবং ওই সেন্টারটিতে তালা দিয়ে দেয় প্রশাসন। ওই সেন্টারেই আজ ইন্টারভিউ ছিল। ইন্টারভিউ দিতে দূর-দূরান্ত থেকে চাকরি প্রার্থীরা।লকডাউন এর কারণে কেউ কেউ গাড়ি ভাড়া করে এসেছিলেন তিন থেকে চার হাজার টাকা খরচ করে। এসে দেখেন সেন্টারে তালা ঝুলছে। বাড়ির মালিককে জিজ্ঞাসা করলে বাড়ির মালিক ভয়ে কিছু বলতে অস্বীকার করে।

পরবর্তীতে জানাজানি হতেই সকল ছাত্রছাত্রীরা থানাতে ওই সেন্টারের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগপত্র দায়ের করে। অভিযোগ পত্র পেয়ে পুরো ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে কল্যাণী প্রশাসন। প্রশাসনের তরফ থেকে জানানো হয় বিষয়টি তদন্ত সাপেক্ষ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here