Home Latest News ২৩ মের পর স্রোত মেপে ঘাট বাছবেন স্ট্যালিন, ফেরালেন চন্দ্রশেখরকে

২৩ মের পর স্রোত মেপে ঘাট বাছবেন স্ট্যালিন, ফেরালেন চন্দ্রশেখরকে

0
২৩ মের পর স্রোত মেপে ঘাট বাছবেন স্ট্যালিন, ফেরালেন চন্দ্রশেখরকে
Parul

মহানগর ওয়েবডেস্ক: না। এখন নয়। স্রোত মেপেই ঠিক করা হবে কোন ঘাটে ভিড়বে তরী। তাই শেষ দফা নির্বাচনের আগে ফেডারেল ফ্রন্টের ভাবনা নিয়ে স্ট্যালিনের দরজায় কড়া নাড়তে থাকা টিআরএস প্রধান চন্দ্রশেখর রাওকে ফিরিয়ে দিলেন দক্ষিণে শক্তিশালী ডিএমকের দাপুটে এই নেতা। ফলে আপাতত তৃতীয় ফ্রন্টের ভাবনা নিয়ে মাঝ নদীতে একাই নাও বাইতে হচ্ছে তেলেঙ্গানা রাষ্ট্রীয় সমিতিকে।

২০১৯ লোকসভা নির্বাচনে কংগ্রেস ও বিজেপির বাইরে বেরিয়ে দিল্লির সিংহাসন দখলের স্বপ্নে বিভোর আঞ্চলিক দলগুলি। আর সেই স্বপ্নকে সাকার করতে দেশের আঞ্চলিক দলের নেতাদের সঙ্গে নিয়ে ব্রিগেডের মাঠে ইউনাইটেড ইন্ডিয়া র‍্যালি করেছিলেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এই ইউনাইটেড ইন্ডিয়াতে সপা, বসপা, ডিএমকের মতো একাধিক রাজনৈতিক দলের পাশাপাশি রয়েছে চন্দ্রবাবু নাইডুর দল টিডিপি। ফলে মমতার প্রতি সমর্থন থাকলেও এই ইউনাইটেড ইন্ডিয়ার শরিক হতে পারছেন না চন্দ্রশেখর রাও। কারণ নিজের রাজ্যে যুযুধান এই দুই দল একত্রিত হলে রাজনৈতিক ক্ষতির সম্ভাবনা প্রবল। যার জেরেই আলাদা আলাদা ভাবে সমস্ত আঞ্চলিক দলগুলির সামনে তৃতীয় ফ্রন্টের ভাবনা নিয়ে ঘুরে ফিরেছেন চন্দ্রশেখর। সম্প্রতি সেই উদ্দেশ্যেই দেখা করেছিলেন ডিএমকে প্রধান স্ট্যালিনের সঙ্গে। তামিলনাড়ুতে চন্দ্রশেখরকে আতিথেয়তার কোনও ত্রুটি না থাকলেও তাঁর আবেদন পত্রপাঠ নাচক করে দেন স্ট্যালিন। স্পষ্ট জানিয়ে দেন ২৩ মের আগে কোনওভাবেই তৃতীয়ফ্রন্টের ভাবনাতে নেই তাঁর দল। ফলে ডিএমকের প্রত্যাখ্যানে আপাতত অথৈ জলে তৃতীয় ফ্রন্টের ভাবনা।

উল্লেখ্য, এই নির্বাচনে এবার তামিলনাড়ুতে কংগ্রেসের সঙ্গে জোট বেঁধে লড়াইতে নেমেছে স্ট্যালিনের দল ডিএমকে। ফলে শুরু থেকেই তৃতীয় ফ্রন্টের তিনি বিপক্ষ হিসাবেই তুলে ধরেছেন নিজেকে। অথচ সেই তিনিই মমতার ডাকে হাজির হয়েছিলেন ব্রিগেডের মঞ্চে। যেখানে সকলকে সঙ্গে নিয়ে মমতা ইউনাইটেড ইন্ডিয়া তুমুল জনপ্রিয়তা পায়। যেখানে কংগ্রেসের তরফে উপস্থিত থাকতে দেখা যায় মল্লিকার্জুন খাড়গেকে। ফলে একটা বিষয় পরিষ্কার হয়ে যায় তৃতীয় ফন্টের মূল যে ভাবনা অ-কংগ্রেস ও অ-বিজেপি। সেখানে অবিজেপি প্রতিষ্ঠিত হলেও অকংগ্রেস কোনওভাবেই নয়। যার জেরেই এবার খালি হাতে দোরে দোরে ঘুরে বেড়াতে হচ্ছে তৃতীয় ফ্রন্টের স্বপ্ন দেখা চন্দ্রশেখর রাওকে। তবে তাঁর স্বপ্নকে না কিন্তু কেউ বলছেন না। সবার মুখে একটাই বুলি আগে ২৩ তারিখটা পেরোক তারপর দেখা যাবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here