সফল অপারেশনের, পেট থেকে বেরল ২ কেজি সিমেণ্টের জমাটবাঁধা মণ্ড

0
176

নিজস্ব প্রতিবেদক, বর্ধমান: বাবার বকা খেয়ে বাড়িতে রাখা সিমেণ্ট এবং পুট্টি গলাধকরণ করেছিল ছেলে বিমল। আত্মহত্যার এই অভিনব চেষ্টায় রীতিমতো নাকানি চোবানি খেতে হল ডাক্তার থেকে শুরু করে পরিবারকে। দীর্ঘ অপারেশনের পর পেট থেকে বের হল প্রায় ২ কেজি ওজনের সিমেণ্টের জমাটবাঁধা মণ্ড। চাঞ্চল্যকর ও নজীরবিহীন এই অপারেশন করলেন বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের চিকিৎসকরা।

বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, ঝাড়খণ্ডের পাকুড় জেলার বাবুদহ গ্রামের বাসিন্দা মৃত্শিল্পী ধীরেন পাল তাঁর ছেলে ১৯ বছরের বিমল পালকে গত শনিবার বকাবকি করেন। আর তারপরেই অভিমানে বাড়িতেই রাখা সিমেণ্ট এবং পুট্টি (ফাটল অংশ মেরামতের জন্য বিশেষ ধরণের রাসায়নিক পদার্থ) খেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করে ছেলে বিমল পাল। এর কিছুক্ষণ পরই শুরু হয় তার পেটে যন্ত্রণা ও বমি। সঙ্গে সঙ্গে স্থানীয় গ্রামবাসীরাই তাকে স্থানীয় মুরারই গ্রামের স্বাস্থ্য কেন্দ্রে ভর্তি করেন। কিন্তু অবস্থার পরিবর্তন না হওয়ায় ওই স্বাস্থ্যকেন্দ্র থেকে তাকে বীরভূমের রামপুরহাট মহকুমা হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়। কিন্তু কিশোরের অবস্থা আরও খারাপ হওয়ায় তাকে নিয়ে আসা হয় বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে।

রবিবার দুপুরে বর্ধমান হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসকরা তার সমস্ত পরীক্ষা নিরীক্ষা করেন এবং তিনদিন অবজারভেশন রুমে রেখে দেওয়া হয়। এরপর বৃহস্পতিবার বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হ