ডেস্ক: গত কয়েক বছর ধরে বিদেশী অস্ত্রের তুলনায় সম্পূর্ণ দেশীয় প্রযুক্তিতে তৈরি অস্ত্রভান্ডারের দিকেই নজর বাড়িয়েছে ভারত। আর সেই লক্ষ্যেই আরও একধাপ এগিয়ে গেল প্রতিরক্ষা বিভাগ। রবিবার সম্পুর্ণ দেশীয় প্রযুক্তিতে তৈরি পরমাণু অস্ত্র বহনে সক্ষম অগ্নি-৫ ক্ষেপণাস্ত্রের সফল উৎক্ষেপণ করল ভারত।

রবিবার ঠিক সকাল ৯ টা ৪৮ মিনিট নাগাদ ওড়িশা উপকূলের ডক্টর আবদুল কালাম দ্বীপ থেকে উৎক্ষেপণ করা হয় এই ক্ষেপণাস্ত্রের। ৫ হাজার কিলোমিটার পাল্লার এই ক্ষেপণাস্ত্র সাফল্যের সঙ্গেই নিজের লক্ষ্যমাত্রা অতিক্রম করে। এই নিয়ে ষষ্ঠ বারের মাথায় সফল ভাবে উৎক্ষেপিত হল এই ক্ষেপণাস্ত্র। প্রতিবারই প্রযুক্তিগত পরিবর্তন ঘটিয়ে তা আপডেট করা হয়েছে। ডিআইডিওর তরফে জানা গিয়েছে, অগ্নি সিরিজের যতগুলি অস্ত্র রয়েছে তার মধ্যে অত্যাধুনিকটায় ও ক্ষিপ্রটায় সম্পূর্ণ আধুনিকতম ক্ষেপনাস্ত্র হল এই অগ্নি-৫। এই ইন্টার ব্যালিস্টিক মিসাইলের বিশেষত্ব হল, এর আওতায় গোটা চিন রয়েছে। এছাড়াও ইউরোপ এবং আফ্রিকারও বেশ কিছু অংশে অনায়াসে হামলা চালাতে পারবে এই মিসাইল।

প্রতিরক্ষামন্ত্রকের তরফে জানানো হয়েছে, অগ্নি-৫ উৎক্ষেপণ করার পর রাডারের মাধ্যমে রাডারের মাধ্যমে তার সমস্ত গতিবিধির উপর নজর রাখা হয়। দেখা গিয়েছে, একেবারে সঠিক ভাবেই কাজ করছে এই মারণাস্ত্রের সমস্ত যন্ত্রপাতি। ইতিমধ্যেই ভারতের কাছে অগ্নি সিরিজের আরও অন্যান্য মিসাইল রয়েছে। এদের মধ্যে, অগ্নি-১ এবং অগ্নি-৩ রয়েছে যারা ৭০০ এবং ৩০০০ কিলোমিটার পর্যন্ত হামলা করতে সক্ষম। এদের বহনকারী বিমান হিসাবে ব্যবহার করা শুখোই-৩০ MKI, মিরাজ-২০০০ এবং জাগুয়ার। এবার অগ্নি-৫ এর এই সফল উৎক্ষেপণের ফলে ঘরে বসেই শত্রু দেশের উপর হামলা চালাতে পারবে ভারত।