ডেস্ক: ভয়াবহ আত্মঘাতী বোমা বিস্ফোরণে কেঁপে উঠল আফগানিস্থানের কাবুল। নৃশংস এই বিস্ফোরণে মৃত্যু হয়েছে ২৬ জনের ঘটনায় আহতের সংখ্যা ১৮। মৃতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে মনে করছে কাবুল প্রশাসন। আহতদের দ্রুত উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এখনও কোনও জঙ্গিগোষ্ঠী এই বিস্ফোরণের দায় স্বীকার করেনি। তবে মনে করা হচ্ছে, এই নারকীয় ঘটনার পিছনে হাত রয়েছে তালিবান জঙ্গিগোষ্ঠীর।

সূত্রের খবর, বুধবার পার্সি নববর্ষ উপলক্ষ্যে নওরাজ উৎসব পালিত হচ্ছিল কাবুল বিশ্ববিদ্যালয়ের সামনে। ঠিক সেই সময় সেখানে আত্মঘাতী বিস্ফোরণে নিজেকে উড়িয়ে দেয় এক যুবক। ভয়াবহ এই বিস্ফোরণে ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় ২৬ জনের, আহত হন আরও ১৮ জন। পুলিশ দ্রুত ঘটনাস্থলে এসে আহতদের উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করে।

অন্যদিকে আর একটি সূত্র থেকে জানা যাচ্ছে, কাবুল পুলিশের তরফে জানানো হয়েছে গাড়িতে প্রচুর বিস্ফোরক মজুত করে দূর থেকে তাঁকে নিয়ন্ত্রন করেই এই ভয়াবহ হত্যালীলা চালিয়েছে জঙ্গিরা। এবং গাড়িটি রাখা ছিল ওই স্থানের আলি আবাদ হাসপাতাল ও কাবুল বিশ্ববিদ্যালয়ের মাঝামাঝি কোনও জায়গায়। গোটা ঘটনার তদন্তে নেমেছে আফগানিস্থানের কাবুলের তদন্তকারী দল। এই ঘটনার দায় এখনও পর্যন্ত কোনও জঙ্গিগোষ্ঠী স্বীকার না করলেও। ঘটনায় সন্দেহের তির তালিবানের দিকে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here