bengali news

Highlights

  • বেশকিছু জায়গায় গাড়ি ভাঙচুর, রেল অবরোধ
  • তৃণমূল-সিপিএম সংঘর্ষেরও খবর উঠে আসছে
  • সুজন চক্রবর্তী-সহ বেশ কয়েকজন বাম নেতাকে আটক করা হয়

মহানগর ওয়েবডেস্ক: দেশজুড়ে অর্থনৈতিক মন্দা, বেকারত্বের সমস্যা, রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থা বন্ধের প্রতিবাদ এবং সেই সঙ্গে সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন, এনআরসি ও এনপিআর-এর বিরোধিতায় আজ কেন্দ্রীয় ট্রেড ইউনিয়নগুলির ডাকে দেশ জুড়ে ২৪ ঘণ্টার সাধারণ ধর্মঘট। এই ধর্মঘটকে কেন্দ্র করে সকাল থেকে বিক্ষিপ্ত অশান্তির ঘটনা থাকলেও বেলা বাড়তেই শহরে ধুন্ধুমার বেঁধে যায়। বেশকিছু জায়গায় গাড়ি ভাঙচুর, রেল অবরোধের মতো ঘটনার পাশাপাশি শহরে তৃণমূল-সিপিএম সংঘর্ষেরও খবর উঠে আসছে।

বাম নেতা সুজন চক্রবর্তীর নেতৃত্বে যাদবপুরে সকাল থেকেই উত্তেজনা ছিল। তাঁর নেতৃত্বে যাদবপুর স্টেশনে রেল অবরোধও করা হয়। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গেই গোটা যাদবপুর এলাকা আরও উত্তপ্ত হতে থাকে। ধর্মঘটীদের সঙ্গে আংশিক বিরোধ বাঁধে পুলিশের। পরবর্তী সময় তা ধস্তাধ্বস্তিতেও পৌঁছয়। বাস ও পুলিশের গাড়িতে ভাঙচুরও চালানো হয়। শেষে সুজন চক্রবর্তী-সহ বেশ কয়েকজন বাম নেতাকে আটক করা হয়।

অন্যদিকে, বেহালার বকুলতলায় বামেদের মিছিলের মুখোমুখি হয়ে যায় তৃণমূলের বনধ বিরোধী মিছিল। স্বাভাবিকভাবেই যা হওয়ার তাই হয়েছে, দুই দলের সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ বাঁধে, আশেপাশের কিছু দোকানও ভাঙচুর হয়। সকাল থেকে সরশুনা সহ বেহালার পরিস্থিতি স্বাভাবিক ছিল, সেই নিয়মে যান চলাচলও স্বাভাবিক ছিল। বেলা বাড়তে এই সংঘর্ষের জেরে বেশকয়েকটি বাস ভাঙচুর করা হয়। কয়েকটি দোকানেও হামলা চালানো হয়। পরিস্থিতি স্বাভাবিক করতে পুলিশ হস্তক্ষেপ করে।

অন্যদিকে, শহরের বিভিন্ন জায়গায় বিক্ষিপ্তভাবে ধর্মঘটের প্রভাব পড়েছে। বড়বাজারে জোর করে দোকান বন্ধ করে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। সেন্ট্রাল অ্যাভিনিউতে টায়ার পুড়িয়ে বনধ পালন করছে কংগ্রেস কর্মী-সমর্থকরা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here