মোদীর কোমরের দড়ি এখন নিজের কোমরে বাঁধার জোগাড় হয়েছে মমতার, কটাক্ষ সুজনের

0
1018
kolkata bengali news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করতে নয়াদিল্লি ছুটেছেন। বিগত কয়েক বছর যাবত বিজেপি ও নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে দূরত্ব বজায় রাখা সত্ত্বেও আচমকা এই সাক্ষাৎ বহু প্রশ্নের জন্ম দিয়েছে বিরোধী শিবিরে। মমতা নিজে যদিও দিল্লির বিমানে চাপার আগে এয়ারপোর্টে দাঁড়িয়ে বলেন, রাজ্যের দাবি-দাওয়া পূরণের উদ্দেশেই তাঁর এই সফর। কিন্তু তাতেও জল্পনা কমছে কই? উল্টে বাম-কংগ্রেস-বিজেপি একযোগে দাবি করছে, রাজীব কুমারকে বাঁচাতেই প্রধানমন্ত্রীর শরণাপন্ন হয়েছেন মমতা।

এই সাক্ষাৎ নিয়ে মুখ্যমন্ত্রীকে বিঁধতে ছাড়েননি বাম পরিষদীয় দলনেতা সুজন চক্রবর্তী। লোকসভা ভোটের নির্বাচনের প্রচারপর্ব থেকে শুরু করে তার আগেও, নরেন্দ্র মোদীকে বহুবার কোমরে দড়ি নিয়ে আসার হুমকি দিয়েছেন মমতা। সেই কথা মনে করিয়ে দিয়ে এদিন সুজন বলেন, প্রধানমন্ত্রীকে কোমরে দড়ি দিয়ে নিয়ে আসবেন বলেছিলেন। এখন নিজের কোমরে দড়ি পরার সময় এসেছে। তাই সঙ্কটকালে মোদীর দ্বারস্থ হয়েছেন তিনি। সেটিং কীভাবে করতে হয় সেটা ভালোভাবেই জানেন ওরা।’

বস্তুত মুখ্যমন্ত্রীর সফর ঘিরে গতকাল থেকেই রাজনৈতিক মহলে চাপানউতোর তুঙ্গে। সূত্রের খবর বুধবার বিকেলে মুখোমুখি বৈঠকে বসবেন প্রধানমন্ত্রী ও মুখ্যমন্ত্রী। আচমকা মমতার দিল্লি যাওয়ার সিদ্ধান্ত ও তাতে মোদীর রাজী হয়ে যাওয়া দেখে সন্দেহের গন্ধ পাচ্ছেন অধীর ও সুজনরা। কারণটা খুবই সঙ্গত। যে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় রাজীব কুমারকে ‘বাঁচাতে’ ধর্নায় বসেছিলেন, তিনিই এই সঙ্গিন মুহূর্তে কেন দিল্লি উড়ে যাচ্ছেন?

রাজীব কুমারের প্রসঙ্গ নিয়েও এদিন বিধানসভায় মুখ খোলেন সুজন। তিনি বলেন, যার অপরাধী ধরার কথা সেই এখন অপরাধীর মতো দৌড়চ্ছে। যারা যারা ওঁর (মমতা) কথা মেনে চলেন তারা এখনই সতর্ক হয়ে যান।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here