ডেস্ক: পুজোয় ক্লাবগুলিকে রাজ্যসরকারের তরফে দেওয়া হবে ১০ হাজার টাকা করে অনুদান। আর সেই অনুদানকে ঘিরেই তৈরি হয়েছে বিতর্ক। এই অনুদান বাতিলের দাবিতে হাইকোর্টে জনস্বার্থ মামলা দায়ের হলেও, সেই মামলার রায় গিয়েছে রাজ্য সরকারের দিকেই। হাইকোর্টের রায়ে নাখুশ বিরোধীরা সুপ্রিমকোর্টের দ্বারস্থ হলেও লাভের লাভ কিছুই হল না। পুজোর অনুদানের উপর কোনও রূপ স্থগিতাদেশ জারি করল না দেশের শীর্ষ আদালত।

শীর্ষ আদালতের অনুদানের উপর কোনও স্থগিতাদেশ জারি না হওয়ার কারণে এখন থেকে আর কোনও বাধা রইল না অনুদানের উপর। তবে এই অনুদানের বিষয়ে আগামী ৬ সপ্তাহের মধ্যে রাজ্য সরকারকে নোটিস দিয়ে হলফনামা জমা দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। আর ৬ সপ্তাহ পর এই মামলার পরবর্তী শুনানি হবে সুপ্রিমকোর্টে। পুজো অনুদান মামলা সুপ্রিম কোর্টে ওঠার পর আইনজীবীদের তরফে অনুমান করা হয়েছিল সরকারের এই সিদ্ধান্তের উপর স্থগিতাদেশ জারি করবে দেশের শীর্ষ আদালত, যেমনটা হয়েছিল কলকাতা হাইকোর্টে। পরে অবশ্য এই মামলা খারিজ করে রাজ্যকে স্বস্তি দেয় কলকাতা হাইকোর্ট। এবার শীর্ষ আদালতে শুরুতেই স্বস্তি মিলল মমতা সরকারের।

উল্লেখ্য, সম্প্রতি রাজ্যের ২৮ হাজার পুজো কমিটিকে ১০ হাজার টাকা করে অনুদান দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় রাজ্য সরকার। আর বিরুদ্ধে গিয়ে আদালতে দায়ের হয় জনস্বার্থ মামলা। বলা হয় ইমাম ভাতাকে অবৈধ বলে রায় দিয়েছে আদালত সেক্ষেত্রে পুজোয় কেন ১০ হাজার টাকা করে দেওয়া হবে। রাজ্যের কাছে বেশকিছু প্রশ্নও তোলে আদালত। এমনকি এই অনুদানের উপর জারি করা হয় স্থগিতাদেশও। পরে অবশ্য হাইকোর্টে এই মামলার রায় রাজ্যের দিকেই যায়। হাইকোর্টের রায়ে নাখুশ হয়ে বিরোধীরা শীর্ষ আদালতের দ্বারস্থ হলেও লাভের লাভ কিছুই হল না।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here