কন্যাশ্রী দিবসে শিক্ষার্থীদের নিয়ে আক্ষেপ ঝরল রাজ্যেরই মন্ত্রীর গলা থেকে

0
kolkata bengali news

নিজস্ব প্রতিবেদক, বর্ধমান: বুধবার ষষ্ঠ বছরে পা রাখল কন্যাশ্রী দিবস। রাজ্যের ক্ষমতায় এসে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কিশোরী কন্যাদের শিক্ষার অগ্রগতির জন্য কন্যাশ্রী প্রকল্প চালু রাখেন। রাজ্যজুড়ে এই প্রকল্প চালু হওয়ায় শুধু যে তা সাফল্যের মুখ দেখেছে তাই নয়, আন্তর্জাতিক মঞ্চে রাষ্ট্রসংঘের হাত ধরে শ্রেষ্ঠ প্রকল্পের পুরষ্কারও জিতে নিয়েছে। সেই প্রকল্পের ষষ্ঠ দিবসে এই প্রকল্পেরই সাফল্য উদযাপনের অনুষ্ঠানে সরকারের শিক্ষানীতি নিয়েই প্রকারন্তরে প্রশ্ন তুলে দিলেন রাজ্যেরই এক মন্ত্রী। বুধবার বর্ধমান সংস্কৃতি লোকমঞ্চে ষষ্ঠ কন্যাশ্রী দিবসের উদ্বোধন করতে এসে ছাত্রীদের উদ্দেশ্যে আক্ষেপ প্রকাশ করতে গিয়ে এই বিতর্কের জন্ম দিলেন রাজ্যের প্রাণী সম্পদ বিকাশ দপ্তরের মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ।

এদিন স্বপনবাবু বলেন, ‘আজকের শিক্ষার্থীরা দেশের, প্রতিবেশী দেশের, অন্যান্য রাষ্ট্রের ভূগোল পড়ে। কিন্তু খুবই দুঃখ লাগে যখন দেখা যায় সেই শিক্ষার্থী নিজের এলাকার ভুগোলই জানেনা। সে জানে না তার এলাকা দিয়ে কোন্ কোন্ নদী প্রবাহিত, সেই ব্লকের নাম কি?’ এরই পাশাপাশি এদিন স্বপনবাবু ছাত্রছাত্রীদের উদ্দেশ্যে আবেদন করে বলেন, ‘দেশের স্বাধীনতা সংগ্রামের জন্য যারা জীবন বলিদান দিয়েছেন কিংবা যে সমস্ত মানুষ অত্যন্ত গোপনে দেশের স্বাধীনতা আনতে স্বাধীনতা সংগ্রামীদের সাহায্য করেছেন নানাভাবে, সেই সমস্ত মানুষদের ইতিহাসকে খুঁজে বার করার দায়িত্ব নিক ছাত্রছাত্রীরা। তাদের সম্মানিত করা হোক।’

উল্লেখ্য, দীর্ঘদিন ধরেই মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ ব্যক্তগত উদ্যোগে পূর্ব বর্ধমান জেলা জুড়ে এই ধরণের মনীষীদের খুঁজে বের করা তাদের ইতিহাস তুলে ধরতে কাজ করছেন। বুধবার সকালেও তিনি তার নির্বাচনী এলাকায় ছাত্রছাত্রীদের সঙ্গে নিয়ে এই ধরণের বেশ কিছু মনীষীর ছবি নিয়ে এলাকা পরিদর্শন করেন। এদিন বক্তব্য রাখতে গিয়ে স্বপনবাবু আগামী দিনে ঘনিয়ে আসা পানীয় জল সংকট মোকা্বিলায় ছাত্রছাত্রীদের এগিয়ে আসার আহ্বান জানান। তিনি জানিয়েছেন, জল অপচয় রুখতে ছাত্রছাত্রীদের এগিয়ে আসতে হবে। অন্যান্যদের মধ্যে এদিন হাজির ছিলেন জেলা পরিষদের সভাধিপতি শম্পা ধাড়া, সহকারী সভাধিপতি দেবু টুডু, জেলাশাসক বিজয় ভারতী সহ জেলা প্রশাসনের আধিকারিকরাও।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here