tala bridge reconstructions

Highlights

  • টালা ব্রিজের হাল খারাপ। যে কোনও দিন ভেঙে পড়তে পারে বহু পুরানো এই সেতু
  • সিদ্ধান্ত ছিল ১৮ জানুয়ারি ভেঙে ফেলা হবে এই সেতু
  • পদ্ধতিগত কারণে ব্রিজ ভাঙার কাজ ফের পিছিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে

নিজস্ব প্রতিবেদক, কলকাতা: টালা ব্রিজের হাল খারাপ। যে কোনও দিন ভেঙে পড়তে পারে বহু পুরানো এই সেতু। জরাজীর্ন এই ব্রিজ ভেঙে ফেলতে উদ্যোগী রাজ্য সরকার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল ১৮ জানুয়ারি ভেঙে ফেলা হবে এই সেতু। তবে শেষ মুহূর্তে ফের একবার পিছিয়ে এল সরকার। নবান্নের তরফে জানিয়ে দেওয়া হল পদ্ধতিগত কারণে ব্রিজ ভাঙার কাজ ফের পিছিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

চরম খারাপ অবস্থায় থাকা এই টালা ব্রিজকে ভেঙে ফেলতে ইতিমধ্যেই রেলের সঙ্গে একাধিক বৈঠক করেছে রাজ্যসরকার। সবশেষে রেলের সঙ্গে সহমত হয়েই ব্রিজ ভাঙার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। এরই মাঝে সূত্র মারফৎ জানা গেল, টালা ব্রিজের নীচে লেভেল ক্রসিং তৈরির জন্য এখনও রেলবোর্ডের কাছ থেকে চূড়ান্ত ছাড়পত্র মেলেনি। তা মিললে ব্রিজ ভাঙার ব্যাপারে পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেওয়ার হবে। অন্যদিকে আগামী দুই থেকে তিন দিনের মধ্যে এব্যাপারে চূড়ান্ত ছাড়পত্র আসবে বলে আশাবাদী পূর্ব রেল। বৃহস্পতিবার এই কথা জানিয়েছেন পূর্ব রেলের এক কর্তা। চূড়ান্ত ছাড়পত্র আসার পরেই ব্রিজ এর পাশে তৈরি করা হবে লেভেল ক্রসিং। লেভেল ক্রসিং তৈরি চূড়ান্ত ছাড়পত্র না মেলায় পূর্বনির্ধারিত ১৮ জানুয়ারি থেকে ব্রিজ ভাঙার কাজ শুরু করা সম্ভব নয়। সেই কারণেই পিছিয়ে যাচ্ছে টালা ব্রিজ ভাঙার তারিখ।

উল্লেখ্য, মাঝেরহাট ব্রিজ দুর্ঘটনার পর রাজ্যের সমস্ত ব্রিজের স্বাস্থ্য পরীক্ষার সিদ্ধান্ত নেয় সরকার। সেই পরীক্ষাতেই গলদ ধরা পড়ে টালা ব্রিজে। ব্রিজ পর্যবেক্ষন সংস্থার তরফে স্পষ্ট জানিয়ে দেওয়া হয় টালা ব্রিজের হাল বেশ খারাপ। অবিলম্ভে ভেঙে ফেলতে হবে এই ব্রিজ। এরপরই তৎপর হয় সরকার। রেলের সঙ্গে একাধিক বৈঠকের পর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় ব্রিজ ভাঙার।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here