ডেস্ক: রাজ্যের শিক্ষা ব্যবস্থার দুর্নীতির যাঁতাকলে পড়ে ফের প্রাণ গেল এক প্রতিভাবান ছাত্রের৷ ভাল নম্বর পেয়েও হন্যে হয়ে এ-কলেজ, ও-কলেজ ঘুরেও ভর্তি হতে না পেরে মানসিক অবসাদে আত্মহত্যা করল সম্ভাবনাময় ছাত্রটি৷ মর্মান্তিক ঘটনাটি ঘটেছে দক্ষিণ চব্বিশ পরগণার সোনারপুরে৷ সেখানকার বোড়াল হাইস্কুল থেকে বিজ্ঞান বিভাগে উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষায় ভালো নম্বর নিয়ে পাস করে অম্লান সরকার। উচ্চমাধ্যমিকে প্রায় ৮০ শতাংশ নম্বর রয়েছে তার মার্কসিটে৷ তবুও কপালে জোটেনি কোনও কলেজ৷ অবশেষে হতাশায় ভুগে নিজেকে পৃথিবী থেকে সরিয়ে নিল অম্লান৷ তার নিজের ঘর থেকে ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার করে সোনারপুর থানার পুলিশ৷

পারিবারিক সূত্র থেকে জানা গিয়েছে, গড়িয়ার দীনবন্ধু অ্যান্ড্রুজ কলেজে মেধাতালিকায় নাম ওঠেছিল অম্লানের। কিন্তু কলেজে দুই গোষ্ঠীর ছাত্রদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনায় আটকে যায় তার ভর্তি। গড়িয়ার কে কে দাস কলেজেও নাম ওঠে অম্লানের। সেখানে আবার দেরিতে পৌছনোয় কলেজে ঢুকতেই পারেনি সে৷ এমনটাই অভিযোগ পরিবারের লোকেদের৷

জানা যাচ্ছে, ভালো ছবি আঁকার সুবাদে অম্লান যায় গভর্নমেন্ট আর্ট কলেজেও। কিন্তু সেখানেও তার ভাগ্য খোলেনি। শেষ পর্যন্ত সোনারপুরের একটি বেসরকারি ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজে গিয়ে ভর্তির আবেদন করে সে। কিন্তু সুযোগ না মেলায় শুক্রবার বাড়ি ফিরে আত্মহত্যার পথ বেছে নেয় অম্লান৷

কলেজে ভর্তির বাইরে আরও একটি তথ্য পাওয়া যাচ্ছে অম্লানের সম্পর্কে৷ স্থানীয়দের থেকে পাওয়া খবর অনুযায়ী, কয়েক বছর আগে পুকুরে স্নান করতে গিয়ে একটি রাধাকৃষ্ণের মূর্তি পায় অম্লান। এরপর থেকেই নাকি সে এক অন্য জগতে বিচরণ করতে শুরু করে৷

এদিকে, ঘর থেকে কোনও সুইসাইড নোট না পাওয়ায় অম্লানের মৃত্যু নিয়ে রহস্য দানা বেঁধেছে৷ কলেজে ভর্তি না হতে পাওয়ার হতাশা, নাকি অন্য কোনও কারণে আত্মঘাতী হয়েছে ছাত্রটি, তা নিয়ে ইতিমধ্যেই তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ৷

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here