ajay devgn

Highlights

  • ‘তানহাজিঃ দ্য আনসাং ওয়ারিওর’ তাঁর ১০০ তম সিনেমা
  • ১৯৯১ সালে ‘ফুল ওর কাটেঁ’ সিনেমার মাধ্যমে বলিউডে ডেবিউ করেন
  • এখন সোশ্যাল মিডিয়ার জন্যই তারকাদের গুরুত্ব কমে গিয়েছে

 

মহানগর ওয়েবডেস্ক: নিজেকে সোশ্যাল মিডিয়ার কচকচানি থেকে দূরে সরিয়ে রাখতেই ভালোবাসেন অজয় দেবগণ। তিনি নিজেই বিশ্বাস করেন কাজটাই তাঁর মূক পরিচয় হয় যেন। আজকাল অভিনেতারা যেভাবে সোশ্যাল মিডিয়াতে নিজেদের প্রচার করেন বা নানা বিষয়ে মতামত প্রকাশ করেন সেটা পছন্দ নয় অজয়ের।

এই বিষয়ে তিনি জানান, ”এখন সোশ্যাল মিডিয়ার জন্যই তারকাদের গুরুত্ব কমে গিয়েছে। কারণ তারকারা সোশ্যাল মিডিয়াতে এতটাই ব্যস্ত যে মানুষ ভাবছে আমরা তাঁদেরই মতো। তাই সোশ্যাল মিডিয়া এড়িয়ে চলি আমি। আমার মতে একজন অভিনেতার অভিনয়টাই করা উচিত, সোশ্যাল মিডিয়াতে প্রচার করে কিছুই হয় না। আমি যেখানেই যাই মানুষ আমাকে ভালো অভিনয়ের জন্য সম্মান দেয়, তখন খুবই ভালো লাগে। তাই এটাই মেনে চলে সবসময়।” ১৯৯১ সালে ‘ফুল ওর কাটেঁ’ সিনেমার মাধ্যমে বলিউডে ডেবিউ করেন। ‘তানহাজিঃ দ্য আনসাং ওয়ারিওর’ তাঁর ১০০ তম সিনেমা।

সেই বিষয়ে তিনি জানান, ”খুবই ভাগ্যবাণ আমি। বলিউডের কেরিয়ারে নানা ধরনের পরীক্ষামূলক চরিত্রে অভিনয় করেছি আমি। কারণ সকলেই নিজের মতো করে লড়াই করেছেন আলাদা কিছু করার জন্য। একটা সময় মানুষ রেনকোটের মতো সিনেমাতে অভিনয় করতে চাইত না। কিন্তু আমি করেছিলাম কারণ আলাদ কিছু করার ইচ্ছা ছিল আমার, ভুল হয়েছে ঠিক হয়েছে কিছুই যায় আসে না আমার। জীবনে রিস্ক নিয়েছি, একদিন অনেকেই বলেছে ওইধরনের সিনেমাতে অভিনয় কর না, এখন দেখুন তারাই সেই ধরনের সিনেমাতে অভিনয় করছেন বাধ্য হয়ে।”

তিনি আরও জানান, ”কখনও কখনও তানহাজিঃ দ্য আনসাং হিরো কিংবা লেজেন্ড অফ ভগৎ সিং-এর মতো সিনেমাতে অভিনয় করতে হয়। কারণ তখনই জানা যায় সাধারণ মানুষদের জন্য এঁরা কি কি করে গিয়েছেন জীবনে। আমরাও ভাবতেই পারি না, হয়ত তারা অন্য ধরনের রক্তে মাংসে গড়া মানুষ ছিলেন। তাঁদের কাছে দেশ আগে।” ‘তানহাজিঃ দ্য আনসাং ওয়ারিওর’ সিনেমাতে অজয় দেবগণ ছাড়াও অভিনয় করতে দেখা গিয়েছে সইফ আলি খান, কাজল ও শরদ কেল্কারকে। মোট চারদিনে বক্স অফিসে এই সিনেমা এখনও পর্যন্ত ৭৫ কোটি টাকা। অজয়কে দেখা যাবে একাধিক সিনেমাতে অভিনয় করতে। যার মধ্যে উল্লেখযোগ্য ‘ময়দান’, ‘ভ্যুজঃ দ্য প্রাইড অফ ইন্ডিয়া’, ‘চাণক্য’। অজয় ‘ময়দান’ সিনেমা সম্পর্কে জানিয়েছিলেন, ”খুবই ভালো একটা গল্প, অমিত শর্মা পরিচালনা করছেন। সময় এখন পাল্টে গিয়েছে, এখন গল্পকে অন্যভাবে ব্যাখা করতে হবে। তাই কোনও প্রেমের ব্যাপার থাকবে না এই সিনেমাতে।”

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here